দের লাখ থেকে পাঁচ লাখ টাকার দুম্বা বিক্রয় হয়েছে বিল্লালের খামার থেকে

বাণিজ্যিকভাবে দুম্বার খামার করে সফলতার মুখ দেখছেন নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার কুমারপাড়া এলাকায় আমিষ এগ্রো ফার্মে মালিক মতিউর রহমান বিল্লাল।

 

 

জানা যায়, ১০ বিঘা জমির উপর এগ্রো ফার্ম গড়ে তোলেন তিনি। প্রথমে ভারতের রাজস্থান থেকে টার্কি (তুরস্ক) জাতের ৬টি দুম্বা এনে খামারের কাজ শুরু করেন মতিউর রহমান।

 

 

২ বছর ধরেই কোরবানি ঈদে তিনি দুম্বা বিক্রি করে আসছেন। এবারের ঈদে তিনি ৬৫টি দুম্বা বিক্রি করেছেন।

 

 

আমিষ এগ্রোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে থাকা মতিউর রহমান বিল্লাল বলেন, করোনাকালীন যখন চাকরি ছিল না, তখন কয়েকজন উদ্যোক্তার প্রেরণায় বিকল্প কিছু করার চিন্তা থেকে আমি এই খামার গড়ে তুলি।

 

 

বর্তমানে এই খামারের মালিকপক্ষের মধ্যে আমিও একজন মালিক হিসেবে রয়েছি। দিনরাত আমিই এখানে সময় দিয়ে থাকি। খামারের মাধ্যমে আমি অনেক সফল হয়েছি।

 

 

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে দুম্বার প্রচুর চাহিদা রয়েছে। চাহিদার তুলনায় দুম্বার জোগান বা উৎপাদন অনেক কম। বর্তমানে আমিষ এগ্রোতে ৬৭টি দুম্বা রয়েছে।

 

 

তার মধ্যে দুটি বাদে সবগুলোই বিক্রি হয়েছে। সর্বনিম্ন দেড় লাখ ও সর্বোচ্চ ৫ লাখ টাকায় দুম্বা বিক্রি করেছি।

 

 

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. সজল দাস বলেন, দুম্বার খামারটি আড়াইহাজার এলাকার জন্য আইকন। অনেকেই তাকে অনুসরণ করবেন। তার খামার দেখে তরুণদের মাঝে উদ্যোক্তা হওয়ার প্রবণতা আমাদের জন্য খুবই পজিটিভ দিক।

 

তথ্যসূত্রঃ