মাত্র ১৮ বছরেই ব্রেস্ট ইমপ্ল্যান্টস করার পরামর্শ, ছবিতে ছবিতে দেখুন দীপিকার গোপন সিক্রেট

ফোটোশ্যুট থেকে ফ্যাশন, ফিগার থেকে কেরিয়ার সবেতেই শিরোনামে থাকেন বলিউডের মস্তানি দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone)। বলিউডে ড্রিম গার্ল দীপিকা পাড়ুকোনের ফিগার থেকে শরীরী সৌন্দর্যে মুগ্ধ আট থেকে অষ্টাদশী। দীপিকা পাড়ুকোন অভিনীত ছবি ‘গেহরাইয়া’- ছবি মুক্তির পর থেকেই উত্তেজনা তুঙ্গে দর্শকদের মধ্য়ে। ছবিতে দীপিকা পাড়ুকোন ও সিদ্ধান্তর চুমু নিয়ে বিস্তর চর্চা শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায়।

ত্রিকোণ প্রেম-পরকীয়া – নিষিদ্ধ প্রেম নিয়ে ওটিটি-তে হাজির হয়েছেন দীপিকা। শকুন বার্তার এই ছবি নিয়ে দর্শকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া থাকলেও দীপিকার অভিনয় প্রশংসা কুড়িয়েছেন বলিউডের মস্তানি। মাত্র ১৮ বছর বয়সেই এক ব্যক্তির কাছ থেকে ব্রেস্ট ইমপ্ল্যান্টসের পরামর্শ পেয়েছিলেন দীপিকা। যদিও তিনিও চুপ না থেকে তার যথাযোগ্য উত্তর দিয়েছিলেন সেই ব্যক্তিকে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে নিজের জীবনের পাওয়া সেরা এবং খারাপ পরামর্শের কথা শেয়ার করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন।

নিষিদ্ধ প্রেম নিয়ে ওটিটি-তে হাজির হয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone)। বোনের হবু বরের শরীরী নেশাতেই একের পর এক ভুল করেই চলেছেন আলিশা। কিন্তু সেই প্রেমের মায়াজাল কাটিয়ে বেরিয়ে আসতে পারছে না, যার জেরেই টালমাটাল আলিশার ম্যারেড লাইফ। দীপিকা ও সিদ্ধান্তের চরম রোম্যান্সেই নজর নেটিজেনদের।

দীপিকা পাড়ুকোন অভিনীত ছবি ‘গেহরাইয়া’- ছবি মুক্তির পর থেকেই উত্তেজনা তুঙ্গে দর্শকদের মধ্য়ে। ছবিতে দীপিকা পাড়ুকোন ও সিদ্ধান্তর চুমু নিয়ে বিস্তর চর্চা শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায়। ত্রিকোণ প্রেম-পরকীয়া – নিষিদ্ধ প্রেম নিয়ে ওটিটি-তে হাজির হয়েছেন দীপিকা (Deepika Padukone)। শকুন বার্তার এই ছবি নিয়ে দর্শকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া থাকলেও দীপিকার অভিনয় প্রশংসা কুড়িয়েছেন বলিউডের মস্তানি।

ছকভাঙা ভিন্ন সম্পর্কের রয়াসন নিয়ে কৌতুহল বাড়েছে অনুরাগীদের মধ্যে। বোনের প্রেমিকের সঙ্গে পরকীয়ার সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন আলিশা। কখনও বিছানায় শুয়ে সিদ্ধান্তের ঠোঁটে ঠোঁট লাগিয়ে চুম খাচ্ছেন দীপিকা পাড়ুকোন , কখনও আবার সমুদ্রের জলেও জমে উঠেছে তাদের গাঢ় রোম্যান্স, যাতে রীতিমতো শোরগোল ফেলে দিয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone) ।

বলিউডে প্লাস্টিক সার্জারির চল বহু দিন ধরেই চলেছে। টিনসেন টাউনের একাধিক অভিনেত্রীরাই ছুরি-কাঁচি চালিয়ে সুন্দরের প্রতিযোগিতায় নিত্যদিন দৌঁড়ে চলেছেন। তবে এ নতুন কিছু নয়। শরীরের যে অংশ অপছন্দ সেখানেই চালিয়ে দেন ছুরি-কাঁচি। তারপর সেরাটা নিয়ে আসেন সকলের সামনে। সেই তালিকায় রয়েছে একাধিক বলি অভিনেত্রীদের নাম। কারণ পর্দায় অভিনয় করতে হলে সুন্দর মুখের পাশাপাশি সুগঠিত শরীরের প্রয়োজন বলে মনে করেন সমাজের একাংশ।

একাধিক নায়িকারা নিজের শরীরে অস্ত্রোপচার করিয়ে পরিবর্তনও এনেছেন। কারোর ঠোঁট তো কারোর নাক, কারোর আবার স্তনযুগল তো কারোর নিতম্ব। ছুরি-কাঁচি চালিয়ে সুন্দর হতে পিছপা হননি বলি নায়িকারা। এমন ধারণার মুখোমুখি হয়েছিলেন দীপিকা পাড়কোন (Deepika Padukone)।

‘গেহরাইয়া’- ছবির প্রচারে সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে নিজের জীবনের পাওয়া সেরা এবং খারাপ পরামর্শের কথা শেয়ার করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone)। মাত্র ১৮ বছর বয়সেই এক ব্যক্তির কাছ থেকে ব্রেস্ট ইমপ্ল্যান্টসের পরামর্শ পেয়েছিলেন দীপিকা। যদিও তিনিও চুপ না থেকে তার যথাযোগ্য উত্তর দিয়েছিলেন সেই ব্যক্তিকে।

সাক্ষাৎকারে জীবনের সবচেয়ে খারাপ উপদেশের কথা তুলে ধরেছেন দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone) । অভিনেত্রী জানান, আমার বয়স যখন ১৮ বছর, তখন একজন আমায় বলেছিল ব্রেস্ট ইমপ্ল্যান্টস করানোর জন্য। যদিও আমি তার কথায় মোটেই পাত্তা দিইনি। তবে আজ পুরোনো দিনের কথা ভাবলেই অবাক হই,এখন মনে হয় ভাগ্যিস আমার মাথায় বুদ্ধি ছিল।

নিজের জীবনের খারাপ অভিজ্ঞতাই শুধু নয়, জীবনে পাওয়া সেরা উপদেশের কথা জানাতেও ভোলেননি দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone) । জীবনের সবচেয়ে সেরা উপদেশটি পেয়েছিলেন শাহরুখ খানের (Shah Rukh Khan) থেকে। বলি নায়িকা বলে শাহরুখ খান সমসময়েই আমাকে ভাল উপদেশ দিতেন।

দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone) বলেন শাহরুখের থেকে পাওয়া সেরা উপদেশটি আজও মেনে চলি। শাহরুখ (Shah Rukh Khan) বলেছিল, এমন মানুষের সঙ্গে কাজ করবে যার সঙ্গে কাজ করে তুমি আনন্দ পাবে, খুশি থাকবে। কারণ তুমি কোনও একটা ছবির শুটিং করছ, তখন তুমি কিন্তু স্মৃতি তৈরি করছো, এবং মুহূর্তগুলো তৈরি করছ। সেই কথা আজও ভুলিনি।

দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone) বলেন শাহরুখের থেকে পাওয়া সেরা উপদেশটি আজও মেনে চলি। শাহরুখ (Shah Rukh Khan) বলেছিল, এমন মানুষের সঙ্গে কাজ করবে যার সঙ্গে কাজ করে তুমি আনন্দ পাবে, খুশি থাকবে। কারণ তুমি কোনও একটা ছবির শুটিং করছ, তখন তুমি কিন্তু স্মৃতি তৈরি করছো, এবং মুহূর্তগুলো তৈরি করছ। সেই কথা আজও ভুলিনি।