যেভাবে নিজের বয়সকে হাতের মুঠোয় বন্দি করেছেন অমিশা পটেল, দেখুন তার সৌন্দর্য রহস্য

এখন অমিশার বয়স ৪৫। যদিও তাঁকে দেখে মোটামুটি মধ্য তিরিশ বলে দিব্যি চালিয়ে দেওয়া যায়। কীভাবে আজও এত সুন্দর তিনি?

সোনিয়া সাক্সেনাকে মনে আছে? কহো না পেয়ার হ্যায় (Kaho Naa… Pyaar Hai) ছবিতে এই চরিত্রে অভিনয় করেই আসমুদ্রহিমাচল কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন অভিনেত্রী অমিশা পটেল (Ameesha Patel)। তাঁর শিশিরস্নিগ্ধ সৌন্দর্যে বুঁদ হয়ে যান সিনেমাপ্রেমীরা। ডেবিউ ছবির পরেও বেশ কয়েকটি ছবিতে তিনি কাজ করেছিলেন। কিন্তু প্রথম ছবির মতো সাফল্য আর পাননি। এখন অমিশার বয়স ৪৫। যদিও তাঁকে দেখে মোটামুটি মধ্য তিরিশ বলে দিব্যি চালিয়ে দেওয়া যায়। কীভাবে আজও এত সুন্দর তিনি? স্পষ্ট হল তাঁর রূপচর্চার রেখা।

এখন সেভাবে পর্দায় নায়িকাকে দেখা না গেলেও বলিউডের সোশ্যাল সার্কিটে বেশ সক্রিয় মিস পটেল। ব্যক্তিগত জীবনের অনেক ঝড়-ঝাপটা সামলেও সবার সঙ্গে ভালোই যোগাযোগ রেখেছেন তিনি।

অমিশার ত্বক বরাবরই সুন্দর। এর জন্য বাড়িতে একটি ফেসপ্যাক তৈরি করেন তিনি। যার জন্য ব্যবহার করেন হলুদ গুঁড়ো আর বেসন। এই দুটি উপাদান দই বা দুধের সঙ্গে মিশিয়ে তিনি মুখে লাগান।

কেরিয়ারের গোড়ার দিকেই মেকআপ করা একদম পছন্দ করতেন না আমিশা। এখনও ত্বকের স্বাভাবিক যত্ন নেওয়া ছাড়া খুব একটা মেকআপ তিনি করেন না। মাঝে মাঝে তিনি শুধুই ক্লেঞ্জার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে সামান্য একটু ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নেন।

ত্বক ছাড়াও অমিশার ব্যক্তিত্বের অন্যতম ইউএসপি হল তাঁর একঢাল লম্বা চুল। ত্বকের মতোই চুলের উপরেও অকারণে এক্সপেরিমেন্ট তাঁর পছন্দ নয়। তিনি চুল ভালো রাখতে আমন্ড অয়েল দিয়ে মাসাজ করেন। চুলের উজ্জ্বলতা ও নরম ভাব ধরে রাখতে অমিশা চুলে কাঁচা ডিম মাখেন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে তিনি সেই ডিম জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নেন।

অমিশার ব্যাগে সব সময় তিনটে জিনিস থাকে। মূলত মেকআপের জন্য এই তিনটি প্রোডাক্টের উপরেই ভরসা করেন তিনি। আর সেগুলো হল রঙবিহীন মাস্কারা, গোলাপি ব্লাশ ও লিপ গ্লস।

অন্যান্য সব নায়িকার মতোই অমিশা পটেলও বিশ্বাস করেন যে শরীরকে ভিতর থেকেও সুস্থ রাখতে হয়। বলিরেখা কম করার জন্য তাই অমিশা বেছে নিয়েছেন নিয়মিত প্রচুর জল পান করার কৌশল। এছাড়াও ডাবের জলও পান করেন তিনি।