আদরের সন্তনদের সামনে যেসব কাজ ভূল করেও করবেন না

শিশুরা অনুকরণপ্রিয় হয়ে থাকে। বড়দের যা করা দেখে শিশুরাও তা করার চেষ্টা করে। এজন্য প্রত্যেক অভিভাবকেরই উচিত শিশুর সামনে বুঝে শুনে কথা বলা ও ব্যবহার করা।

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, পারিবারিক কলহের কারণে শিশুর মানসিক বিকাশ বাধাগ্রস্ত হয়। এছাড়াও বাবা মা যদি খারাপ শব্দ ব্যবহার করে বা অন্যের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করে তাহলে এর প্রভাব শিশুর উপরেও পড়ে। তাই প্রত্যেক অভিভাবকেরই জানা উচিত সন্তানের সামনে কোন কোন কাজগুলো করা উচিত নয়-

শিশুর সামনে ফোন এবং টিভি কম ব্যবহার করুন। এর ফলে আপনার সন্তানও গ্যাজেট থেকে দূরে থাকবে। যদি সন্তান আপনাকে সারাদিন টিভি বা ফোনে ব্যস্ত থাকতে দেখে তাহলে সেও এই অভ্যাস রপ্ত করবে। তখন হাজার চেষ্টা করেও সন্তানের গেজেট প্রীতি কমাতে পারবেন না।

সন্তানের সামনে কখনো কাউকে অপমান করবেন না। এতে শিশুর ওপর খারাপ প্রভাব ফেলবে। শিশুর সামনে কাউকে কখনো উচ্চবাচ্য করবেন না। এর ফলে শিশু আপনার মত করেই মানুষকে অপমান করে কথা বলা শিখবে।

শিশুর সামনে সবার সঙ্গে ভদ্রতা বজায় রাখুন। এ অভ্যাস কি আপনার জন্য যেমন ভাল ঠিক তেমনি আপনার সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য ভালো হবে। সন্তান আশেপাশে থাকলে স্বামী স্ত্রী ও ভদ্রতা বজায় রাখুন।

সন্তানের সামনে স্বামী স্ত্রী কখনোই ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্ঠা করবেন না। এমন কোন কাজ করা থেকে বিরত থাকুন যা শিশুর ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে।

কখনো চিৎকার করবেন না শিশুর সামনে। রেগে গেলেও বাচ্চার সামনে মেজাজ নিয়ন্ত্রণে রাখুন। যদি এমন করেন তাহলে আপনার সন্তানও এভাবে কথা বলবে সবার সঙ্গে।

ছোট-বড়, গরীব ধনী, কালো ফর্সা, মেয়েছেলে ইত্যাদি ভেদাভেদ কখনো শিশুকে শেখাবেন না। পরিবার থেকেই যদি শিশুরাই সব ভেদাভেদ শেখে তাহলে বড় হলেও এর প্রভাব থেকে যায় তার মনে।