স্তব্ধ হল কোকিলকন্ঠ… স্মৃতির পাতা থেকে সুরসম্রাজ্ঞীর কিছু না দেখা ছবি

Lata Mangeshkar passes away: স্তব্ধ হল কোকিলকন্ঠ…স্মৃতির পাতা থেকে সুরসম্রাজ্ঞীর কিছু না দেখা ছবি…

ভারতীয় সঙ্গীত জগতে অপূরণীয় শূন্যস্থান তৈরি করে চলে গেলেন লতা মঙ্গেশকর।

লতা মঙ্গেশকর প্রয়াত। বয়স হয়েছিল ৯২ বছর। প্রায় চার সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন শিল্পী।

সম্প্রতি অবস্থার উন্নতিও হচ্ছিল। কিন্তু শনিবার থেকেই আচমকা তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। দিতে হয় ভেন্টিলেশনে। সেখান থেকে আর ফেরানো যায়নি লতাকে।

এর আগেও সঙ্কটজনক অবস্থায় একাধিক বার হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয়েছিল লতাকে। কিন্তু অনুরাগীদের আশ্বস্ত করে প্রত্যেকবারই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছিলেন।

২৮ সেপ্টেম্বর ১৯২৯ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন লতা মঙ্গেশকর। ভারতের ৩৬টি ভাষায় গান গেয়েছেন তিনি। তবে হিন্দি ও মারাঠি ভাষায় তাঁর গাওয়া গানের সংখ্যাই বেশি। ১৯৮৯ সালে দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে ভূষিতা হন তিনি।

মাত্র ১৩ বছর বয়সে বাবাকে হারান। তার আগে অবশ্য বাবার হাত ধরেই অভিনয় এবং গান শিখতে শুরু করে দিয়েছিলেন। ১৩-১৪ বছর বয়সেই প্রথম বার সিনেমায় গান গাওয়া। মরাঠি ছবিতে। মুম্বই যাওয়ার পর ১৯৪৮ সালে প্রথম হিন্দি ছবিতে গান। ‘মজবুর’ ছবিতে।

২০০১ সালে ভারতরত্নে সম্মানিত হন লতা মঙ্গেশকর। ভারতীয় সঙ্গীতজগতে অসামান্য অবদান রয়েছে তাঁর। বাংলা ভাষাতেও ১৮৫টি গান গেয়েছেন তিনি।

গত কয়েকদিন ২৪ ঘণ্টা চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে ছিলেন লতা মঙ্গেশকর। চিকিৎসকরা তাঁর ভক্তদের অনুরোধ করেছিলেন, কিংবদন্তি শিল্পীর আরোগ্য কামনায় যেন প্রার্থনা করা হয়। কিন্তু লতা মঙ্গেশকরের অগণিত ভক্তের প্রার্থনা শেষমেশ কাজে এল না। ভারতীয় সঙ্গীত জগতে অপূরণীয় শূন্যস্থান তৈরি করে চলে গেলেন লতা মঙ্গেশকর।