পুষ্টি এবং স্বাদ একসঙ্গে চাই? তাহলে শীতের নৈশভোজে থাক পাঁঠার মেটে চচ্চড়ি

আজকাল শরীর সুস্থ রাখতে অনেকেই এড়িয়ে চলেন রেড মিট। শরীর ও হৃদ্‌যন্ত্র ভাল রাখতে যতটা ক্ষতিকর রেডমিট, ঠিক ততটাই উপকারী মেটে। মেটে এমনিতেপুষ্টিকর। তবে যাঁদের ইউরিক অ্যাসি়ড বেশি, তাঁরা এড়িয়ে চলুন। পুষ্টিকর হলেও হজম হতে খানিক বেশি সময় নেই মেটে, তাই পরিমাণে অল্প খাওয়াই ভাল। তবে স্বাদে অবশ্যই অতুলনীয়। এই শীতে পুষ্টিকর অথচ সুস্বাদু নৈশভোজ খেতে চাইলে বানাতে পারেন খাসির মেটে চচ্চড়ি। রইল প্রণালী।

উপকরণ

পাঁঠার মেটে: ১ কেজি

পেঁয়াজ কুচি: এক কাপ

কাঁচা লঙ্কা কুচি: এক টেবিল চামচ

রসুন কোয়া: পাঁচটি

আদা: দু’টুকরো

হলুদ গুঁড়ো: দু’চা চামচ

লাল লঙ্কা গুঁড়ো: দু’চা চামচ

গরম মশলা গুঁড়ো: আড়াই চা চামচ

জায়ফল গুঁড়ো: আধ চা চামচ

গোলমরিচ গুঁড়ো: দু চা চামচ

ছোট এলাচ:

বড় এলাচ: দু’টি

লবঙ্গ: পাঁচটি

দারচিনি: তিনটি

তেজপাতা: দুটি

গোটা জিরে: এক চা চামচ

সর্ষের তেল: পরিমাণ মতো

নুন: স্বাদ মতো

প্রণালী

একটি কড়াইতে তেল গরম করে আলু সোনালি করে ভেজে তুলে রাখুন।

এবার ওই তেলেই ছোট এলাচ, লবঙ্গ, তেজপাতা, ও গোটা জিরে ফোড়ন দিন। ফোড়নের গন্ধ বেরোলে পেঁয়াজ কুচি দিন।

পেঁয়াজ ভাজা ভাজা হয়ে এলে আদা-রসুন বাটা দিয়ে নাড়তে থাকুন। কষে এলে মেটে দিয়ে দিন।

কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করার পর হলুদ, লঙ্কা আর জায়ফল গুঁড়ো আর কাঁচা লঙ্কা কুচি আর নুন দিন। মশলা ভাল করে মিশে গেলে জল ও আলু দিয়ে ঢাকা দিয়ে দিন।
মেটে সেদ্ধ হলে জল শুকিয়ে আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। হয়ে গেলে উপর থেকে গরম মশলা ছড়িয়ে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন রুটি অথবা পরোটার সঙ্গে।