স্কিপিং বা দড়ি লাফের ১০ টি দারুন উপকারিতা জেনে নিন

স্কিপিং, শৈশবের সবচেয়ে অবিস্মরণীয় একটি খেলা। ছোট বয়সে যে সকল খেলা আমি খেলেছি, তাদের মধ্যে স্কিপিং-ই বেস্ট ছিল। এ কথাটি হলফ করে বলা যায়, স্কিপিং বা দড়ি লাফ শুধুমাত্র খেলাই নয়, অতিরিক্ত মেদ ঝরানোর একটি কৌশল।

কালের বিচারে আমরা এখন বড় হয়েছি আর দড়িটাও যেন স্মৃতির মনিকোঠায় কোথায় হারিয়ে গেছে। এই আর্টিকেলটি, আপনাদের সেই হারিয়ে যাওয়া স্মৃতিকে আবার মনে করিয়ে দেবে।

স্কিপিংএর উপকারিতা

১.নিয়ম করে স্কিপিংএর অভ্যাস, আপনার হৃৎপিণ্ডকে উজ্জীবিত করবে অর্থাৎ হার্ট অ্যাটাক এর মত দুরারোগ্য ব্যাধির থেকে মুক্তি পাবেন।

২. অতিরিক্ত পরিমাণ মেদ ঝরিয়ে শরীরকে বেশ চনমনে করে তুলবে। গবেষণায় দেখা গেছে, এই জাম্পিং দড়িটি ঘন্টায় প্রায় তেরোশো ক্যালরি মেদ ঝরাতে সক্ষম।

৩.প্রতিদিন দৌড়ানোর থেকে স্কিপিং, অনেক বেশি মাত্রায় ক্যালোরি ঝরাতে সক্ষম। এর জন্য আপনাকে বাইরে কোন জায়গায় যেতে হবে না বা খারাপ আবহাওয়াও আপনার শারীরিক কসরত এর উপর কোনো প্রভাব ফেলবে না।

৪.সবচেয়ে আশ্চর্যজনক বিষয়, এই স্কিপিং দড়িই, ব্যায়ামের অন্যান্য ইন্সট্রুমেন্টের থেকে সবচেয়ে সস্তা।

৫.অতিরিক্ত ওজন কমানোর পাশাপাশি শরীরের মাসল গুলিকেও উজ্জীবিত করে।

৬.শারীরিক ভারসাম্য বজায় রেখে শরীরের গঠন করে একদম পারফেক্ট। এই কারণেই রানার বা অ্যাথলেটিকসরা, অনুশীলনের সময় স্কিপিং এর ওপর প্রাধান্য দিয়ে থাকে।

৭. একমাত্র স্কিপিংই পারে, উরু, পা এবং কাফ মাসেলের বিকাশে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে। হাতের বাহু এবং এবডোমিনাল মাসলের ওপরেও এটি কাজ করে।

৮.হিপ ফ্লেক্সোর পেশীকে আরো উন্নত করতে সাহায্য করে।

৯.গবেষণায় দেখা গেছে, বিভিন্ন শারীরিক জয়েন্ট গুলোর উপরে স্কিপিং, দৌড়ানোর তুলনায় অনেক কম প্রেসার প্রয়োগ করে। কিন্তু ফলাফলের বিচারে “দড়ি লাফ” অনেক এগিয়ে।

১০. কার্ডিওভাসকুলার হেলথের ইমপ্রুভমেন্ট ঘটিয়ে, হার্টবিট সঠিক রাখতে সাহায্য করে। রক্তচাপ বা ব্লাড প্রেসার জনিত রোগীদের জন্য যা অত্যন্ত উপকারী।

তাছাড়া শরীরের হাড় শক্ত এবং মজবুত করতে “স্কিপিং দড়ি” আমাদের প্রত্যেকেরই বেছে নেয়া উচিত।
স্কিপিং এক্সারসাইজের কিছু মৌলিক বিষয়

স্কিপিং দড়িটি যেন অবশ্যই ভালো মানের হয়, সেই দিকে খেয়াল রাখুন।

একজন স্কিপার হিসাবে আপনি অবশ্যই খালি পায়ে স্কিপিং করবেন। গবেষণার ফল অনুযায়ী, জুতো পড়ে স্কিপিং করার চাইতে খালি পায়ে স্কিপিং করলে পায়ের পেশি আরো বেশি স্ট্রং হয় এবং বিভিন্ন ফুট-রিলেটেড সমস্যা সমাধানে সাহায্য করে।

এই সময় একটি ভালো কোয়ালিটির স্পোর্টস ব্রা ইউজ করুন।

এ কথাটি সত্যি যে, যে কোন বয়সের বা যে কোন স্তরের লোকেদের ওপরেই স্কিপিং, একটি ভালো প্রভাব ফেলে। কিন্তু মনে রাখতে হবে শুরুতেই বা বিগেনার স্তরে অতিরিক্ত পরিমাণ স্কিপিং এক্সারসাইজ, আপনার হার্ট এবং হাড়ের জয়েন্ট গুলি কে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

কাঠের বা মসৃণ কোন মেঝের উপরে কখনোই দড়ি লাফাবেন না।এতে ইনজুরির সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

খোলা আকাশের নিচে স্কিপিং

সবথেকে বেস্ট হবে আপনি যদি খোলা আকাশের নিচে স্কিপিং করতে পারেন।এতে আপনার দড়ি কোন বস্তুর সঙ্গে আটকে যাবে না কিংবা ঘরের সিলিংএ ও ধাক্কা খাবে না।

স্কিপিং করার আগে অবশ্যই ওয়ার্ম-আপ করে নেবেন।

কেমন ভাবে স্কিপিং শুরু করবেন

স্কিপিং শুরু করার আগে দড়ির, দৈর্ঘ্যের প্রতি আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে।

স্কিপিং এক্সারসাইজের প্রকারভেদঃ

ডবল জাম্পঃ

ডবল জাম্প স্কিপিং এক্সারসাইজ সবচেয়ে প্রচলিত। এই কৌশলটির অনুশীলন অত্যন্ত দ্রুতগতিতে করতে হয়।
২/৩ ইঞ্চি করে প্রত্যেকবার লাফের সাহায্যে, দড়িটিকে ১৮০ ডিগ্রী অ্যাঙ্গেলে হাতের মারফত, ঘোরানোর দ্বারা এই প্রকার এক্সারসাইজ করতে হয়। আপনার ফিটনেস এর লেভেল অনুযায়ী গতির পরিবর্তন করুন।

ক্রস জাম্পঃ

এই প্রকার জাম্প অনেকটাই ডবল জাম্পের মতনই। পার্থক্য শুধু দড়ি ধরার কায়দায়। ডান হাত দিয়ে বাম দিকের দড়ি এবং বাম হাত দিয়ে ডান দিকে দড়ি ধরে এই ক্রস জাম্পের এক্সারসাইজ টি করতে হয়।

সিঙ্গেল লেগ জাম্পঃ

এটি স্কিপিং স্টাইলের একটি এডভান্স লেভেল। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে ২ টি পায়ের পাতা, একত্রে যেন মাটিতে স্পর্শ না হয়। একটি পায়ের পাতা মাটিতে স্পর্শ থাকা অবস্থায় দড়ি জাম্পের মাধ্যমে অন্য পায়ের পাতা মাটিতে স্পর্শ করবেন।

অর্থাৎ চোখ বন্ধ করে বলা যায় স্কিপিং একটি মজার খেলার মারফত শারীরিক অলসতা দূরীকরণের একটি পদ্ধতি।