অল্প সময়ে কোমড় পর্যন্ত লম্বা চুল পেতে মেনে চলুন এইসব ঘরোয়া টিপস

এই সময় জীবনযাপন ডেস্ক: চুলের (Hair) প্রতি প্রতিটি মানুষের মধ্যেই গভীর অনুরাগ রয়েছে। কেউ তা প্রকাশ করেন, কেউ করেন না। এক্ষেত্রে পুরুষের তুলনায় মহিলাদের মধ্যে চুলের প্রতি ভালোবাসা এক চিলতে হলেও বেশি থাকে। বেশিরভাগ মহিলাই নিজের চুল সম্পর্কে খুবই সচেতন থাকেন। চুলের নানা স্টাইলে তাঁরা হলেন সিদ্ধহস্ত।

মহিলাদের মধ্যে লম্বা চুলের (Long Hair) একটা বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। চুল পৌঁছে গিয়েছে কোমড় পর্যন্ত, এ ভীষণই গর্বের বিষয়। সেই চুল ছেড়ে রেখে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যেতে ভালোবাসেন এই মানুষগুলি। তবে সকলের তো এমন ভাগ্য থাকে না। অনেকের চুল সহজে বাড়তে চায় না। আর চুল বড় হতে শুরু করলেই চুলের মাথা ভেঙে যায়। অনেকের চুলের মাথা দুই টুকরো হয়ে যায়। তবে এমন সমস্যার সম্মুখীন হওয়া বেশিরভাগ মানুষই মনে মনে বেশ দুঃখ পান। এমনকী অনেকে নিজেকে দোষ দিতে শুরু করেন। কিছু ক্ষেত্রে হতে পারে ডিপ্রেশনও (Depression)। তাই এই বিষয়টিকে খুব সহজভাবে নেওয়া চলবে না। এক্ষেত্রে সমস্যার সমাধান খুঁজতে হবে।

তবে বহু ক্ষেত্রেই অনেক চিকিৎসা করার পরও এই সমস্যা দূর হয় না। বাড়তে চায় না চুল (Hair Growth)। সেক্ষেত্রে কোন পথে পাওয়া যাবে মুক্তি? আরে আপনার হাতের কাছেই রয়েছে সমস্যার সমাধান। বাড়িতে শুধু এই কয়েকটি বিষয় মেনে চলুন (Home Remedies)।

আপেলের বীজের সঙ্গে ভিনিগার

আপেলের বীজের অনেক গুণ। এমনই একটি গুণ হল এই এই বীজ চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে পারে। এছাড়া ভিনিগার মাথার ত্বকের আর্দ্রতা ঠিক রাখতে পারে। তাই আপেলের বীজ ছাড়িয়ে তা প্রথমে বেটে নিন। এরপর সেই বীজের সঙ্গে মিশিয়ে নিন ভিনিগার। এবার এই মিশ্রণ চুলে মাখুন। কিছুক্ষণ এই অবস্থায় থাকুন। মাথায় শুকিয়ে যাক মিশ্রণ। তারপর ভালো করে শ্যাম্পু (Shampoo) করে নিন। দেখবেন সমস্যা মিটেছে।

পিঁয়াজের রস

পিঁয়াজের রসে এমন অনেক উপকারী উপাদান রয়েছে যা চুল মজবুত করতে সাহায্য করে। এক্ষেত্রে এই রসে থাকা সালফার চুলের গোড়া শক্ত করে। ফলে চুল বাড়তে পারে সহজে। এক্ষেত্রে একটা পিঁয়াজ কেটে নিন। তারপর সেই পিঁয়াজ মিক্সিতে বা হাতে বেটে নিন। বাটার পর একধরনের রস বেরবে। পরিমাণ মতো রস নিয়ে মাথায় মাখুন। ১৫ মিনিট এই অবস্থায় থাকুন। তারপর ভালো করে শ্যাম্পু করে নিন। সমস্যা মিটতে বাধ্য।

ডিমের মাস্ক

চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য প্রোটিনের প্রয়োজন। এক্ষেত্রে ডিমে রয়েছে ভালো পরিমাণে প্রোটিন। তাই ডিম মাখলে চুলে মেলে পুষ্টি। এক্ষেত্রে একটি ডিম ফাটিয়ে নিন। এবার ডিমের কুসুম আলাদা করে ফেলে দিন। পরে থাকা সাদা অংশে মেশান ১ চামচ মধু ও ২ চামচ অলিভ তেল। ভালো করে মিশিয়ে নিন। তারপর মাথায় মেখে নিন এই মিশ্রণ। ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে ভালো করে শ্যাম্পু করুন।

এই সাধারণ কয়েকটি ফর্মুলাতে হতে পারে সমস্যার সমাধান। তবে এরপরও সমস্যা থাকলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।