আপনার হলদেটে দাঁত সাদা করার ঘরোয়া উপায় শিখে নিন

দাঁত (Teeth) আমাদের খুবই প্রয়োজনীয় এক অঙ্গ। এই কথাটি আমি কেবল শারীরিক দৃষ্টিকোণ থেকে বলিনি। দাঁতের একটা দেখনদারি দিকও রয়েছে। এই ধরুন কোনও মানুষের সঙ্গে আপনি কথা বলছেন বা কারও সঙ্গে আপনার দেখা হলে আপনি মুখ খুলে দাঁত বের করে হাসেন। এবার সেই দাঁত যদি হলুদ বা ছোপছোপ হয়, তবে সামনের মানুষটির কাছে আপনার পার্সোনালিটি নিয়েই প্রশ্ন উঠে যায়। তাই দাঁতের স্বাস্থ্যের (Teeth Hygiene) দিকে নজর দেওয়া আমাদের অন্যতম কর্তব্য।

কেন এমন হয়?

দাঁত হলুদ (Yellow Teeth) হওয়ার নানান কারণ থাকতে পারে-

ভালো করে দাঁত না মাজার কারণে হতে পারে এই সমস্যা। অনেকে আবার রোজ ব্রাশ করেন না।

কফি, রেড ওয়াইন, চা বেশি পান করার কারণে দাঁত হলুদ হতে পারে।

কিছু বিশেষ ধরনের ওষুধ খেলে দাঁতে ছোপ বা হলদেটেভাব আসতে পারে।

অনেক সময় আঘাতজনিত কারণে দাঁত ভেঙে যায়। এই ভাঙা জায়গায় জমতে পারে খাবার। তখন দাঁত হলদেটে দেখায়।

কারও কারও মুখ ভীষণ আর্দ্র হয়। মুখ শুকিয়ে থাকে সারাক্ষণ। তাঁদেরও এই সমস্যা দেখা যায়।

খৈনি, গুটখা, পান, জর্দা চিবালেও হতে পারে দাঁতের অবস্থা খারাপ।

এছাড়া সিগারেট, বিড়ি সেবনেও দাঁত হতে পারে হলুদ।

কী ভাবে বাড়িতেই মিলবে মুক্তি?

এই ধরনের সমস্যা দেখা দিলে অনেকেই বেশ হীনমন্যতায় ভোগেন। তবে আজ আর চিন্তা নেই। এই কয়েকটি উপায়ে বাড়িতেই মিলতে পারে দাঁতের হলদে ভাব থেকে মুক্তি।

বেকিং সোডা ও হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, হাইড্রোজেন পারঅক্সাইডের সঙ্গে বেকিং সোডা মিশিয়ে দাঁতে ঘষলে দাঁত সাদা হচ্ছে। এক্ষেত্রে এক টেবিল চা চামচ বেকিং সোডা নিন। সঙ্গে মিশিয়ে নিন এক টেবিল চামচ হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড। এই মিশ্রণ দিয়ে দাঁত মাজতে পারেন। তবে বলে রাখি, এই মিশ্রণ ব্যবহারের পর অবশ্যই ভালোমতো মুখ ধুয়ে নেবেন।

নারকেল তেল

ভাবছেন নিশ্চয়ই এ আবার কেমন কথা! তবে যা বলছি ঠিকই বলছি। মুখে মাত্র ১৫ মিনিটের জন্য রাখুন নারকেল তেল। দেখবেন ফল মিলছে হাতেনাতে। এক্ষেত্রে মুখে পরিমাণ মতো নারকেল তেল নিয়ে মুখে রাখুন। সময় হয়ে গেলেই সোজা মুখ থেকে ফেলে নিন। তারপর মুখ ধুয়ে নিন ভালো করে।

আপেলের বীজ ও ভিনিগার

আপেলের বীজের নানান রকম স্বাস্থ্য সম্পর্কিত লাভ রয়েছে। এমনই একটি লাভ হল, এই বীজ আপনার দাঁত সাদা করতেও পারে। এক্ষেত্রে সামান্য কয়েকটি আপেলের বীজের সঙ্গে মিশিয়ে নিন ভিনিগার। এরপর সামান্য জলে সেই মিশ্রণ ভিজিয়ে দাঁত মেজে নিন। ১০ সেকেন্ড ব্রাশ করুন। কেটে যাবে মুখের হলুদভাব।

নিমডালের ব্রাশ

দাঁতন! একেবারে আদিকালের দাঁতন দিয়ে দাঁত মেজে দেখুন। সমস্যা একেবারে দৌড়ে পালাবে। কারণ নিমের ডালে মধ্যে এমন ভালো কিছু উপাদান রয়েছে যা দাঁত থেকে বের করে দিতে পারে ময়লা। তাই নিম ব্যবহার করা ধরুন।

চিকিৎসকের পরামর্শ

এতসব কিছু করার পরও সমস্যা না মিটলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। তবেই দাঁতের রং ফিরবে।