বাড়ীতে মুখ পরিষ্কার করার সময় মেয়েরা যে সাধারনর ভুলগুলি করে থাকে

এই সময় জীবনযাপন ডেস্ক: ত্বক সুস্থ ও পরিষ্কার রাখার জন্য নিয়মিত যত্ন নেওয়া উচিত। প্রতিদিন আমরা যেমন সাবান লাগিয়ে স্নান করি, তেমনই প্রতিদিন নিয়মিত মুখ পরিষ্কার করা উচিত। তবে ভুল পদ্ধতিতে মুখ পরিষ্কার করলে খুব একটা উপকার হবে না। সঠিক ভাবে মুখ ধুলে ত্বকের মৃত কোষ ও নোংরা সহজে দূর হয়ে যায়। ত্বক পরিষ্কার করার ভুল অভ্যাসের কারণে পিম্পল দেখা দিতে পারে, যার ফলে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে।

গরম বা শীতকাল যা-ই হোক না-কেন ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করা উচিত। কারণ গরম জল ত্বকের রক্তবাহিকার ক্ষতি করতে পারে। আবার ঠান্ডা জলে মুখ ধোয়ার কারণে নানান প্রোডাক্ট ত্বক শোষণ করতে পারে না।

ত্বককে সুস্থ ও পরিষ্কার রাখার জন্য নিয়মিত ভাবে মুখ ধোয়া উচিত। এর ফলে মুখে পিম্পল, র‌্যাশের মতো সমস্যা দেখা দেবে না। পাশাপাশি ত্বক হবে উজ্জ্বল। তবে মুখ পরিষ্কার করার সময় কয়েকটি ভুল করে থাকেন অনেকে। যা এড়িয়ে যাওয়া উচিত–

নোংরা হাত দিয়ে মুখ পরিষ্কার করবেন না

মুখ ধোয়ার আগে অনেকে হাত পরিষ্কার করেন না এবং সরাসরি হাতে ফেস ওয়াশ নিয়ে মুখে লাগাতে শুরু করেন। কিন্তু এটি ভুল পদ্ধতি। ত্বকে নোংরা লাগলে নানান সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। তাই মুখে হাত দেওয়ার আগে ভালো ভাবে হাত ধুয়ে নিন। অ্যান্টিসেপ্টিক লোশানও ব্যবহার করতে পারেন।

গরম জলের ব্যবহার

আবহাওয়া যেমনই থাকুক না-কেন ঈষদুষ্ণ জলে বা ঠান্ডা জলে মুখ ধোঁয়া উচিত। অনেকে শীতকালে গরম জল দিয়ে মুখ ধুয়ে থাকেন। কিন্তু এর ফলে ত্বকে ট্যানিং বা রুক্ষ্মভাব দেখা দেয়। তাই কখনও মুখ ধোয়ার জন্য ভুলেও গরম জল ব্যবহার করবেন না।

মেকআপ করা মুখ ধোঁয়া

মুখে মেকআপ লাগিয়ে থাকলে সরাসরি জল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করবেন না। এর আগে মেকআপ রিমুভার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করুন। তার পর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। মেকআপ লাগিয়ে রাখা অবস্থায় মুখ ধুলে, তার কণা ত্বকের রোমছিদ্রে ঢুকে যায়। এই মেকআপগুলি রোমছিদ্রের মুখ বন্ধ করে দেয় এবং ত্বকের নানান সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে।

মুখ পরিষ্কার করার সঠিক প্রোডাক্ট ব্যবহার না-করা

মুখ পরিষ্কার করার প্রোডাক্ট যথাযথ না-হলে মুখে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। তাই নিজের ত্বকের ধরণ বুঝে এই প্রোডাক্টগুলি কিনবেন। আবার মুখ পরিষ্কার করার জন্য সাবান ব্যবহার করবেন না। কারণ এতে কঠিন রাসায়নিক পদার্থ থাকে। যা ত্বকের ক্ষতি করতে পারে।