রাধা সেজে নবরাত্রিতে কন্ডোমের বিজ্ঞাপনে ‘অশ্লীল নাচ’ নিয়ে আবারও বিতর্কে সানি, দেখুন গ্যালারী

সম্প্রতি অনলাইনে প্রকাশ পায় ‘মধুবন'(Madhuban)। সানির বিরুদ্ধে রাধার নামে কুরুচিকর ভিডিও তৈরি করার অভিযোগ করেছেন মথুরার পুরোহিতরা। তাঁদের দাবি ভিডিওটি নিষিদ্ধ করা হোক। এটি হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাাত হেনেছে। এবার মথুরার পুরোহিতদের পাশে দাঁড়িয়েছেন মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র।

১৯৬০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘কোহিনুর’ ছবির জনপ্রিয় গান ‘মধুবন মে রাধিকা নাচে’ গানটির রিমেক ভিডিও তৈরি করেছেন সংগীত পরিচালক শরীব-তোশি (Sharib Toshi)। সেই গানটি গেয়েছেন কণিকা কাপুর(Kanika Kapoor) ও ঐ গানে ভিডিওতে নাচতে দেখা যায় সানি লিওনিকে। রবিবারই ঐ ভিডিওটি সরিয়ে নেওয়ার হুমকি দেন ঐ বিজেপি নেতা। অবশেষে বদলে ফেলা হল গানের কথা ও মিউজিক ভিডিওটির নাম। ইতিমধ্যেই টুইটারে ট্রেন্ডিং

কিছু বছর আগে বেঙ্গালুরুর একটি নিউ ইয়ার পার্টিতে পারফর্ম করার কথা ছিল সানি লিওনির। কিন্তু বেশ কিছু প্রতিবাদ মিছিলের কারণে সানিকে পারফর্ম করার অনুমতি দেয়নি বেঙ্গালুরুর
পুলিস কমিশনার। সানির অনুষ্ঠানের প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখায় কর্ণাটক রক্ষণা বেদিকা যুব সেনা। পুড়ানো হয় সানির পোস্টার। সানির অনুষ্ঠানকে ভারতীয় সংস্কৃতির অবমাননা আখ্যা দেয় তাঁরা।

নবরাত্রি চলাকালীন সময়ে কন্ডোমের বিজ্ঞাপন দিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন সানি লিওনি। গুজরাটে বিক্ষোভের মুখে পড়ে বিজ্ঞাপন সংস্থা ও সানি লিওনি। বিভিন্ন শহরের রাস্তা থেকে নামিয়ে ফেলা হয় বিজ্ঞাপনের বোর্ড। এমনকি সানির নামে দায়ের হয় একাধিক অভিযোগ। এই নবরাত্রিতে প্রেমের সঙ্গে খেলুন, এই ছিল বিজ্ঞাপনের ট্যাগলাইন। সেখান থেকেই শুরু বিতর্ক।

বলিউডে যখন প্রথম পা রাখেন সানি লিওনি তখন সেলিনা জেটলির ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছিলেন তিনি। সেইসময় সেলিনা দাবি করেছিলেন যে তাঁর ফ্ল্যাট নোংরা করেছেন সানি ও তাঁর স্বামী ওয়েবের। এমনকি এই দম্পতির জন্য নাকি বিপদেও পড়েছিলেন সেলিনা।

কেরিয়ারের শুরুর দিকে সানি তাঁর একটি ছবির প্রচার করতে চেয়েছিলেন কপিল শর্মা শোয়ে। কিন্তু পারিবারিক শো হওয়ার কারণে সানির সেই ছবি প্রমোট করতে চাননি কপিল শর্মা। কিন্তু এই গুজব মেনে নেননি কপিল শর্মা। রাগিনী এমএমএস টুয়ের প্রচারে কপিলের শোয়ে হাজির হন সানি লিওনি।

ছবির শুটিংয়ে গিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েন সানি। শোনা যায় যে একটি ছবিতে কিছু ঘনিষ্ঠ দৃশ্য শুট করার কথা ছিল সানির। সেই শুটিংয়ের আগে সানির কোস্টার সানির HIV টেস্টের দাবি তোলে। যদিও এই বিষয়ে কেউ মুখ খোলেননি।

টুইটারে কমল আর খানের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন সানি লিওনি। কমল আর খান লিখেছিলেন যে সানি বলেছেন, ধর্ষণ কোনও অপরাধ নয়, এটি আচমকা যৌনসঙ্গম। যদিও এই কথা কখনই সানি বলেননি। তাঁর নামে মিথ্যা প্রচার করেছিলেন কমল আর খান।