পুরুষ হোন বা মহিলা, খাওয়া-দাওয়ার পর এই কাজগুলি একদমই করবেন না

খাওয়ার পরে আমরা অনেকেই এমন কিছু কাজ করি, যেগুলি আদতে আমাদের শরীরের ক্ষতি করে। একজন ডায়েটিশায়েনর পরামর্শ উদ্ধৃত করে সেইরকমই দাবি করেছে একটি সর্বভারতীয় হিন্দি দৈনিক। একনজরে দেখে নিন, ঠিক কী কী অভ্যাস আমাদের ক্ষতি করছে। ছবি- থিংকস্টক।

শুয়ে পড়া- খেয়েই সঙ্গে সঙ্গে শুয়ে পড়বেন না। এর ফলে বদহজম থেকে বুকে জ্বালা এবং গ্যাসের সমস্যা দেখা দিতে পারে। খাওয়ার অন্তত দু’ঘণ্টা পরে ঘুমোতে যাওয়া উচিত।

চা পান করা- খাওয়ার পরেই চা পান করলে বদহজম হতে পারে। খাওয়ার অন্তত দু’ঘণ্টা পরে চা পান করুন। তা না হলে শরীর ঠিকমতো প্রোটিন গ্রহণ করতে পারবে না।

দাঁত ব্রাশ করা- খুব মিষ্টি অথবা টক খাবার খেলের দাঁতের এনামেলের আস্তরণ হালকা হয়ে যায়। ফলে, মিষ্টি অথবা টক খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্রাশ করলে এনামেল বেরিয়ে আসতে পারে। খাওয়ার অন্তত আধ ঘণ্টা পরে দাঁত ব্রাশ করা উচিত।

ধূমপান- খাওয়ার পর পরই সিগারেট খেলে তার ক্ষতিকারক প্রভাব অনেক বেড়ে যায়। ক্যানসারের আশঙ্কাও বে়ড়ে যায়। হৃদয্ন্ত্রের সমস্যা এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যাও দেখা দেয়। খাওয়ার পরে অন্তত দু’ঘণ্টা ধূমপান করা উচিত নয়।

ফল খাওয়া- খাওয়ার পর পরই ফল খেলে শরীর ঠিকমতো পুষ্টি গ্রহণ করতে পারে না। খাবার ঠিকমতো হজমও হয় না। অ্যাসিডিটির সমস্যা দেখা দিতে পারে।

স্নান করা- স্নান করার সময়ে শরীর ঠান্ডা হয়ে যায়। ফলে রক্ত সঞ্চালন প্রভাবিত হয়। যে কারণে পাচন প্রক্রিয়ার গতি কমে যায়। তাই খাওয়ার পরে অন্তত আধ ঘণ্টা স্নান করা উচিত নয়।

বেল্ট খুলে ফেলা- খাওয়ার পরেই স্বস্তি পেতে অনেকেই কোমরের বেল্ট আলগা করে দেন। কিন্তু খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এমন করলে পাচনতন্ত্র ব্লক হয়ে যেতে পারে।

হাঁটা- অনেকেরই ধারণা, খাওয়ার পরে হাঁটলে হজম ভাল হয়। আসলে, খাওয়ার পরে সঙ্গে সঙ্গে হাঁটলে রক্ত সঞ্চালন প্রভাবিত হয়ে হজমে ব্যাঘাত ঘটায়। খাওয়ার আধ ঘণ্টা পরে হাঁটা উচিত।