দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখতে অভ্যাস করুন সহজ এই ৮টি ব্যায়াম

৮৭% মানুষ বয়স হয়ে যাওয়া নিয়ে ভীত থাকেন সব সময়। এই বুঝি বুড়ো হয়ে গেলাম, এই বুঝি আমাকে বৃদ্ধ দেখাচ্ছে এমন কথা মনে মনে চলতে থাকে সারাক্ষণ। বয়স বাড়ার বেশ কিছু উপসর্গ রয়েছে, উদাহরণ স্বরূপ, ক্লান্তি-অবসাদ। কিন্তু আপনি এর সাথে মোকাবেলা করতে পারবেন শরীরের বিশেষ বিশেষ স্থানে টান দেওয়া বা টান লাগানোর মাধ্যমে। এই টানগুলো আপনার দেহের জড়তা কাটাবে এবং দেহভঙ্গি ঠিক রাখবে, রক্ত প্রবাহ বাড়াবে, এবং মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করবে। এরকম ৮টি খুব সাধারণ ব্যায়াময়ের কথা নীচে উল্লেখ করা হলো যা আপনার মাংসপেশিকে জড়তা-হীন করবে এবং আপনার দেহে যৌবন ধরে রাখবে।

ফুলের তোড়া

১. দু পা ফাঁক করে সোজা হয়ে দাঁড়ান।

২. সামনের দিকে ঝুঁকে শরীর ভাজ করুন।

৩. হাঁটু ভাজ করে কোমর নামাতে শুরু করুন। আপনার নিতম্ব যতটা সম্ভব নামিয়ে নিন। পিঠ সোজা রাখুন।

৪. কোমর মেলে দিন, দুই বাহু দিয়ে হাঁটুতে চাপ দিতে থাকুন। দু’ হাত এক করে রাখুন।

৫. শান্ত এবং গভীর শ্বাস নিন।

এই ভঙ্গিতে ১০-১৫ সেকেন্ড থাকুন। তারপর স্বাভাবিক হয়ে কিছুক্ষণ পর আরো দুই বার করুন।

যদি পা মাটিতে না বসাতে পারেন, তাহলে পায়ের তালুর নিচে একটি তোয়ালে গোল করে মুড়িয়ে দিন।

মোচড় দেওয়া

১. সোজা হয়ে দাঁড়ান। দু হাত প্রসারিত করুন। আঙুল গুলো একসাথে রাখুন, হাতের তালু নিচের দিকে মুখ করে নিন।

২. হাতের অবস্থান পরিবর্তন না করে শরীরকে ঘড়ির কাটার দিকে তিনবার পূর্ণ মোচড় দিন।

৩. একই প্রক্রিয়ায় ঘড়ির কাটার দিকে মোচড় দিন।

কোমর ভাজ, উরুর পেশি এবং নিতম্ব টান

১. হাঁটুর সমান উচ্চতার একটি টেবিলের উপর বাম পা রাখুন।

২. আপনার বাম হাঁটু ভাজ সামনের দিকে ভাজ করুন, পিঠ এবং ডান পা সোজা রাখুন। ১০ সেকেন্ড ধরে থাকুন। ছেড়ে দিন।

৩. একই প্রক্রিয়া ডান পা দিয়ে করুন।

৪. বাম গোড়ালি টেবিলের উপর রাখুন। এ সময় দুই পা সোজা থাকবে।

৫. আপনার নিতম্ব যথাস্থানে ধরে রেখে সামনের দিকে ঝুঁকুন। ১০ সেকেন্ড ধরে রাখুন।

৬. একই প্রক্রিয়া ডান পায়ের গোড়ালি টেবিলে রেখে করুন।

৭. টেবিলের উপর বসুন। ডান পা মাটিতে রেখে বাম পায়ের গোড়ালি ডান হাঁটুর উপর রাখুন।

৮. বাম হাঁটুর উপর হালকা ভাবে চাপ দিন এবং সামনের দিকে ঝুঁকুন। ১০ সেকেন্ড ধরে রাখুন।

৯. পা পরিবর্তন করে একই প্রক্রিয়া অনুসরণ করুন।

তারা দেখা

১. হাঁটুর উপর বসুন। পায়ের পাতা মাটিতে স্পর্শ করে থাকবে। হাত কোমরে দিন।

২. পিঠ সোজা রাখুন এবং থুতনি বুকের স্পর্শ করার চেষ্টা করুন।

৩. মাথা পিছনের দিকে নিন এবং পিঠ ভাজ করুন।

৩ বার এই প্রক্রিয়া পুনরাবৃত্তি করুন।

মাথা এবং পা তোলা

১. পিঠ মাটিতে রেখে শুয়ে পড়ুন। হাত শরীরের সাথে লম্বালম্বি করে রাখুন, হাতের তালু মাটিতে থাকবে।

২. মাথা উঁচু করে থুতনি দিয়ে বুক স্পর্শ করুন।

৩. এরপর পা উপরে তুলন। এসময় নিতম্ব মাটির স্পর্শে থাকবেনা।

এই ব্যায়ামটি ৩ বার পুনরাবৃত্তি করুন।

টেবিলের মত

১. লম্বালম্বি করে পা সামনের দিকে দিয়ে নিতম্বের উপর বসুন।

২. পিঠ সোজা রাখুন এবং সোজা হাত দুটিতে ভর করে ঘাড় পেছনের দিকে নিয়ে আসুন।

৩. মাথা যতটা সম্ভব ছবির মত রাখুন। এরপর পিছনে নিয়ে যান।

৪. হাঁটু ভাজ করে নিতম্ব উঁচু করুন, হাতের তালুর উপর ভর রাখুন।

৫. এই অবস্থানে ৫ সেকেন্ড থাকুন।

পুরো প্রক্রিয়াটি ৩ বার পুনরাবৃত্তি করবেন।

কুকুরের ভঙ্গি

১. উপুড় হয়ে শুয়ে পড়ুন। হাত দু’টি কাঁধ বরাবর রাখুন৷ পায়ের পাতার উপর ভর দিয়ে আস্তে-আস্তে শরীরটি উপরের দিকে তুলতে থাকুন।

২. হাত পুরো স্ট্রেচ করুন। হাঁটু আর পেট মাটি থেকে যতটা সম্ভব তুলে নিন৷ পেটটা ভিতর দিকে টেনে রাখবেন৷

৩. দু’ পায়ের মাঝের দূরত্ব যতটা সম্ভব কমিয়ে নিন।

৪. এবার হাতের তালুতে ভর দিয়ে শরীরের উপরের অংশ উঁচু করতে থাকুন এবং মাথা যতটা পেছনে নিয়ে যাওয়া যায় নিন।

৫. হাত এবং পা ভাজ না করে, নিতম্ব উঁচু করুন এবং থুতনি দিয়ে বুক স্পর্শ করার চেষ্টা করুন।

৬. এই ভঙ্গিতে ৫ সেকেন্ড থাকুন।

পুরো প্রক্রিয়াটি ৩ বার পুনরাবৃত্তি করবেন।

প্যাক-ম্যান

১. বসুন এবং হাঁটু ভাজ করুন।

২. হাত দিয়ে হাঁটু জড়িয়ে ধরে দুই হাঁটুর মাঝে মুখ গুজে দিন।

৩. পিঠ গোল করে ভাজ করুন এবং চেষ্টা করুন থুতনি বুকের সাথে ধরে রাখতে।

৪. সামনে পেছনে গড়ানো শুরু করুন

৫. ৩০ সেকেন্ড এই ব্যায়ামটি করুন।

কখন কখন আপনি দুর্বল বোধ করেন? আপনি কি প্রতিদিন ব্যায়াম করেন? আপনি কীভাবে নিজের তারুণ্য ধরে রাখছেন ব্যায়ামের মাধ্যমে তা জানান নীচের কমেন্টে।