বিয়ের চার দিনই ভিকির কাছে হাতেনাতে ধরা পড়লেন অঙ্কিতা, সহকর্মীর হাতে হাত রেখে গোপনে প্রেমালাপ

মাত্র চার দিন হল সাত পাক ঘুরেছেন। বিয়ের গন্ধ গায়ে লেগে এখনও। কিন্তু এর মধ্যেই কী হল নতুন কনে অঙ্কিতা লোখান্ডের? সংসার শুরু হতেই দাম্পত্যে অরুচি? সহকর্মী কর্ণবীর বোহরার সঙ্গে ধরা পড়লেন স্বামী ভিকি জৈনের কাছে!

স্বামীর অনুপস্থিতিতে কর্ণবীরের হাতে হাত রেখে খানিক প্রেমালাপে মজেছিলেন অঙ্কিতা। কিন্তু ঠিক তখনই কহানি মে টুইস্ট! অঙ্কিতা-কর্ণবীরের সেই প্রেমালাপের বারোটা বাজাতে এসে উপস্থিত হন ভিকি স্বয়ং। স্ত্রীর থেকে দূরত্ব বজায় রাখতে উপদেশ দেন কর্ণবীরকে। দু’জনেই তখন তাঁকে দেখে খানিক অপ্রস্তুত। এর পরে আর কোনও বাক্য ব্যয় না করে অঙ্কিতাকে সেখান থেকে নিয়ে চলে যান ভিকি। অঙ্কিতাও চুপচাপ হাত জোড় করে কর্ণবীরকে বিদায় জানিয়ে ফিরে যান স্বামীর সঙ্গে।

এই পুরো ঘটনাটিই কোনও ধারাবাহিকের নাটকীয় দৃশ্য মনে হচ্ছে তো? প্রশ্ন জাগছে অঙ্কিতা-ভিকির রূপকথার প্রেম কাহিনিতে তৃতীয় ব্যক্তির প্রবেশ কী ভাবে?

আসলে ধারাবাহিক নয়, অনুরাগীদের হাসানো জন্য এই ভিডিয়ো তৈরি করেছেন তাঁরা। কর্ণবীর-অঙ্কিতা-ভিকির এই সংক্ষিপ্ত রিলের ত্রিকোণ প্রেমের গল্প দেখে হেসে লুটোপুটি তাঁদের অনুরাগীরাও।

১৪ ডিসেম্বর দীর্ঘ দিনের প্রেমিক ভিকির সঙ্গে বিয়ে সেরেছেন অঙ্কিতা। ঘিয়ে রঙা ভারী কাজের লহেঙ্গা, গয়নায় সেজে উঠেছেন ‘পবিত্র রিশতা’র অর্চনা। স্ত্রীর পোশাকের সঙ্গে রং মিলিয়ে শেরওয়ানি পরেছিলেন ভিকি। সাত পাক ঘুরেই বন্ধুদের সঙ্গে হইহুল্লোড়ে মেতেছিলেন নবদম্পতি। উদ্‌যাপনের রেশ কাটলেও খুনসুটি থামেনি ভিকি-অঙ্কিতার।