প্রায়ই গলা জ্বলে, চোঁয়া ঢেকুর ওঠে? ওষুধ ছাড়া সহজেই আয়ত্তে আনুন এই সমস্যা

সামান্য মশলাজাতীয় খাবার খেলেই গলা জ্বালা, চোঁয়া ঢেকুর, আর তার পরেই মুঠো মুঠো গ্যাস-অম্বলের ওষুধ খাওয়া। খাদ্যাভ্যাসে কোনও সমস্যা এলেই তাকে এই ভাবে ঠেকিয়ে রাখতে চান অনেকেই। কিন্তু যখন-তখন ঘন ঘন গ্যাস-অম্বলের ওষুধ খাওয়া শরীরের জন্য একেবারেই ভাল নয় বলে মত চিকিৎসকদের।

‘‘সব সময় খুব নিয়ম মেনে খাওয়াদাওয়া করা যায় না যেমন, তেমনই কোনও দিন ভারী খাওয়াদাওয়া হলেই গ্যাস-অম্বলের শিকার হতে হবে, এটাও কোনও কাজের কথা নয়। বরং শরীরের নানা উৎসেচকেরই ক্ষমতা আছে সেই অনিয়মের সঙ্গে লড়ার। কিন্তু ঘন ঘন গ্যাস-অম্বলের ওষুধ খেতে খেতে আমরা শারীরিক সেই ক্ষমতাকে ভোঁতা করে দিয়ে ওষুধনির্ভর হয়ে প়ড়ি। তার চেয়ে রোজের রুটিনে কিছু অদলবদল ঘটিয়েই কব্জায় রাখতে পারেন এই গলাজ্বালা, চোঁয়া ঢেকুরের মতো অসুখ।’’— মত গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজিস্ট ভাস্করবিকাশ পালের।

গলা জ্বালা, চোঁয়া ঢেকুর মূলত হজমের সমস্যা থেকেই হয়। কিছু অভ্যাস বদলাতে পারলে ও খাদ্যাভ্যাসে সামান্য পরিবর্তন আনলেই এমন সমস্যা থেকে অনেকটাই রেহাই মেলে। দেখে নিন সে সব উপায়।

খালি পেটে গ্যাসের ওষুধ নয়, ভরসা রাখুন লেবু-জলে। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

1. গলা জ্বালা বা চোঁয়া ঢেকুরের উপদ্রব ঠেকাতে খাবার থেকে আজই বাদ দিন চিনি। পারলে গুড় বা গুড়ের বাতাসা দিন তার পরিবর্তে। নারকেলের চিনি ব্যবহার করতে পারলেও ভাল।

2. যতটা নুন এখন খান, তার চেয়ে ২ গ্রাম মতো কমিয়ে দিন রোজের খাবার থেকে। কেবল তেল-মশলাই নয়, অতিরিক্ত নুন গ্যাস-অম্বলের জন্য দায়ী।

3. অসময়ে চা-কফি অনেক ক্ষেত্রে অম্বল ডেকে আনে। বিশেষ করে বয়স বাড়লে যখন-তখন চা-কফি খাবেন না। অনেক সময় দুধ-চা থেকে অনেকের সমস্যা আসে। তেমন হলে লিকার চা খাওয়া অভ্যাস করুন।

4. খিদে পেলে অনেকটা খেয়ে ফেলা আমাদের স্বভাব। খিদে পেলে বা নিমন্ত্রণ বাড়িতে খেতে বসার আগে এক গ্লাস জল খেয়ে নিন। এতে পেটে অনেকটা জায়গা কমে যায়, ফলে অনেক খাবার খেয়ে ফেলার প্রবণতা কমে।

5. ভাল করে চিবিয়ে খাবার খান। তাড়াহুড়োয় ভাল করে না চিবনোর ফলে ভাল করে হজম হয় না খাবার। এতে অম্বলের প্রবণতা বাড়ে।

6. কোনও ধরনের খাবারে অ্যালার্জি থাকলে তা এড়িয়ে চলুন। বেশি রাতে দুধ বা ফল খাবেন না।

7. শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী জল খান।

8. প্যাকেটজাত ফলের রস, ঠান্ডা পানীয়, সোডা ইত্যাদি এড়িয়ে কাঁচা ফল, ডাবের জল ইত্যাদি যোগ করুন ডায়েটে।

9. সকালে উঠে খালি পেটে গ্যাসের ওষুধ না খেয়ে গরম জলে লেবুর রস মিশিয়ে খান। এতে শরীরের টক্সিন বেরিয়ে শরীর সুস্থ থাকবে। খাওয়াদাওয়ার আধ ঘণ্টা বাদে বাদেও এই জল খেতে পারেন।