শিখে নিন বেরেস্তা মচমচে ও সংরক্ষণ করার দারুণ কৌশল

রান্নাকে সুস্বাদু করতে বেরেস্তার ব্যবহার প্রায় গৃহিণীরাই করে থাকেন। তবে এটি তৈরি করার সঠিক পদ্ধতি জানা না থাকায় অনেকেই বেরেস্তা পুরিয়ে ফেলেন, অথবা মচমচে করতে পারেন না। ফলে খাবারের সঠিক স্বাদও আসে না।

আজ আপনাদের জন্য থাকছে বেরেস্তা মচমচে করার পদ্ধতিটি। এছাড়া কীভাবে এই মচমচে বেরেস্তা সংরক্ষণ করবেন, সে কৌশলটিও। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কোন পদ্ধতিতে বেরেস্তা মচমচে ও সংরক্ষণ করবেন-

যা যা লাগবে

দেশি পেঁয়াজ, ছোট আকারের। তেল পরিমাণ মতো। কাচের বয়াম।

পদ্ধতি

পেঁয়াজ অবশ্যই দেশি এবং ছোট আকারের নিন। এরপর পেঁয়াজ খোসা ছাড়িয়ে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে ধারালো বটি বা ছুরি দিয়ে খুব মিহি করে কুচি করে নিন। কুচিগুলো সব কাছাকাছি হতে হবে। কোনোটা মোটা কোনোটা বেশি চিকন করলে অর্ধেক পুড়ে যাবে, বাকি অর্ধেক নরম থাকবে।

কুচি করা হলে পেঁয়াজের দ্বিগুণ তেল দিয়ে গরম করে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে দিন। অল্প তেলে ভাজলে অনেক সময় নরম থাকে। মাঝারি আঁচে দু-তিন মিনিট ভাজুন। ভাজার শেষের দিকে কম আঁচে ভাজবেন। শেষের দিকে খুব দ্রুত রং হতে থাকে। পুরাপুরি বাদামি রং হওয়ার আগেই চুলা থেকে নামিয়ে একটি পরিষ্কার কাচের পাত্রে তুলে ফেলুন। বাদামি রং হওয়া পর্যন্ত চুলায় রাখলে পুড়ে যাবে এবং তিতা লাগবে।

সংরক্ষণ

গরম ভাপ চলে গেলে পরিষ্কার কাচের বয়ামে বেরেস্তা ভরে মুখ বন্ধ করে রাখুন।

সতর্কতা

মনে রাখবেন, বেরেস্তা বড় পেঁয়াজ দিয়ে করা যাবে না। চিনি বা লবণ দেওয়া যাবে না।