আর নয় ক্রিম বা নামীদামী প্রসাধনী, এক থাপ্পড়েই মিলবে ঝকঝকে উজ্জ্বল ত্বক

ত্বকের সৌন্দর্য্য ধরে রাখতে নানান পদ্ধতি অবলম্বন করেন নারীরা। অনেক নামীদামী প্রসাধনী কিনে টাকাও অপচয় করেন। কিন্তু এত কিছু করেও কাঙ্ক্ষিত ফলাফল পাওয়া যায় না। তবে যদি বলা হয় নিজেকে সুন্দর করে তুলতে শুধু প্রয়োজন মাত্র একটি থাপ্পড়ের! অবাক হবেন নিশ্চয়।

অবাক করা তথ্য হলেও সৌন্দর্য্য ধরে রাখতে অ্যারোমা থেরাপির পাশাপাশি জায়গা করে নিয়েছে থাপ্পড় থেরাপিও।

মূলত দক্ষিণ কোরিয়ার নারীরাই এই থেরাপির প্রচলন শুরু করেন। ত্বকের যত্ন নিতে সেখানকার নারীরা নিজেরাই নিজেদের গালে থাপ্পড় মারতেন। তারপর এই থেরাপি শুধু দক্ষিণ কোরিয়াতেই সীমাবদ্ধ থাকেনি, ধীরে ধীরে গোটা বিশ্বেও বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

রূপচর্চার অঙ্গ এই থাপ্পড় থেরাপির পদ্ধতি হলো, হাতের তালুর দ্বারা নিজের উভয় গালেই হালকা হাতে, আলতো করে চড় বা থাপ্পর মারা।

এই থেরাপি ত্বকের যত্নে কীভাবে সাহায্য করে?

হাতের তালু দিয়ে গালে থাপ্পড় মারার ফলে মুখের রক্ত সঞ্চালন ঠিক থাকে। ত্বককে ভেতর থেকে পরিষ্কার করতে সাহায্য করে এই পদ্ধতি। মুখের প্রতিটি অংশে রক্ত প্রবাহ বেড়ে যায়। ফলে ত্বক হয়ে ওঠে জেল্লাদার ও উজ্জ্বল।