মহিলাদের হাড়ক্ষয় প্রতিরোধে ক্যালসিয়ামের ভুমিকা বিস্তারিত জেনে নিন

বয়সের সাথে সাথে হাড় ক্ষয় একটি অবধারিত বিষয়। বিশেষ করে মহিলাদের শরীরে ক্যালসিয়াম এর ঘাটতি এবং হাড় ক্ষয়ের সম্ভাবনা পুরুষদের চেয়ে অনেক বেশি থাকে। এর কারন গর্ভধারন জনিত এবং এর পরবর্তীতে বাচ্চার মাতৃদুগ্ধ পানকালীন সময়ে ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন ডি এর চাহিদা বেশি থাকে। এরপর মেনোপজের সময়ে এস্ট্রজেন হরমনের অভাবে শরীরে ক্যালসিয়ামের শোষণ কমে যায়, ফলে এসময়ে খুব দ্রুত হাড় ক্ষয় হতে থাকে।

এছাড়া আর যেসব কারনে Calsium এর অভাব হতে পারে তা হচ্ছে-

ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার পরিমানে কম গ্রহন করা

পর্যাপ্ত শরীর চর্চার অভাব (weight bearing exercise)

অলসতা পুর্ন জীবন যাপন

কিছু ওষুধ যেমন, ডাই-ইউরেটিক্স, হেপারিন, জন্মনিয়ন্ত্রণ এর ইঞ্জেকশন (DMPA) দীর্ঘদিন ব্যাবহার করলে হাড় ক্ষয়ের মাত্রা বেড়ে যায়।

হাইপো প্যারাথাইরয়েডিজম, কিডনি ড্যামেজ।

অ্যালকোহল, ধুমপান ইত্যাদি। শরীরে প্রয়োজনীয় এই মিনারেলের অভাবে হাড়ক্ষয় (Osteoporosis, Osteopenia) ছাড়াও যে সমস্যাগুলো হতে পারে তা হচ্ছে-
খিচুনি, মাসেল ক্রাম্প, অবশতা, হাই ব্লাড প্রেসার, ডিপ্রেশন, ঘুমের সমস্যা, দুর্বলতা ইত্যাদি।

সমাধান:

পর্যাপ্ত পরিমানে ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার গ্রহন করা, যেমন- দুধ, পনির,চিজ বা অন্যান্য দুগ্ধজাত খাবার, বাদাম, ব্রকলি, সবুজ শাক- সবজি ইত্যাদি।

নিয়মিত এক্সারসাইজ এবং দীর্ঘসময় শুয়ে- বসে থাকা পরিহার করা

প্রেগনেন্সি এবং ল্যাক্টেশনের সময় প্রতিদিন ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী Calsium+Vit-D ট্যাবলেট গ্রহন।

বয়স চল্লিশের পর অথবা অন্যান্য রিস্ক ফ্যাক্টর থাকলে Calsium ও vit- D supplimentation নেয়া।

ডাঃ নুসরাত জাহান, সহযোগী অধ্যাপক (অবস-গাইনী)

বন্ধ্যাত্ব বিষয়ে ট্রেনিং প্রাপ্ত (ইন্ডিয়া), ল্যাপারোস্কপিক সার্জন।

চেম্বার: ডিপিআরসি হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক ল্যাব,

(১২/১, রিং-রোড, শ্যামলী, ঢাকা-১২০৭)