খুব বেশী মন খারাপ হলে এই ১১টি কাজ আপনাকে নির্মল আনন্দ দেবে

মানুষের মন হঠাৎ করে এমনিতে খারাপ হয় না, কোন না কোন কারন থাকেই। হয়তো আমরা সচেতনভাবে বুঝতে পারি না, অবচেতন মন সেটি বুঝতে পারে। অনেক বেশি মন খারাপ থাকলে স্বাভাবিক কাজকর্মের উপর তার প্রভাব পড়তে থাকে। কাজে ঠিকমতো মন বসে না এবং দেখা যায় অনেক ক্ষেত্রেই ভুল হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়।

মন খারাপ নিয়ে যে সিদ্ধান্তগুলো নেয়া হয় তাও পরবর্তী জীবনের জন্য খারাপ হয়। তবে মন খারাপ ভালো করার উপর আমাদের নিজেদের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে অনেকাংশে। আসুন জেনে নিই কিভাবে হঠাৎ খারাপ হয়ে যাওয়া মন ভাল করা যেতে পারে:

১. বন্ধুদের খোঁজখবর নিন

মন খারাপের একটি অন্যতম কারণ হলো কোনো কাজ খুঁজে না পাওয়া, অর্থাৎ অলস সময় পার করা। অলস সময় পার করলে একঘেঁয়ে লাগতে থাকে। যা মন খারাপে রূপ নেয়। এই একঘেঁয়ে ভাব কাটাতে বন্ধুবান্ধব ও পরিচিত জনের খোঁজ খবর নিন। এখন সকলের হাতেই আছে মোবাইল, তাই ফোন করে, মেসেজ করে অথবা ভিডিও কল করে পরিচিত মানুষজনের সাথে একটু গল্পগুজব করুন। এতে একদিকে আপনার যেমন মন ভালো হবে তেমনি যার খোঁজ খবর নিচ্ছেন তারও ভাল লাগবে।

২. প্রার্থনা করুন

মন ভালো করার জন্য প্রার্থনা খুবই কার্যকরী। সৃষ্টিকর্তার কথা স্মরণ করলে মন নরম হয় এবং কৃতজ্ঞতার সঞ্চার হয়। হাত মুখ ধোয়ার ফলে আপনার শরীর ও মনটা ফ্রেশ লাগবে। যদি মুসলিম হোন, যদি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ মসজিদে গিয়ে আদায় করেন তবে আপনার আশেপাশের অনেকের সাথে আপনার দেখা সাক্ষাৎ হবে, তাদের খোঁজখবর ও নেয়া হবে। অন্য ধর্মের হয়ে থাকলে নিজ নিজ ধর্মীয় ইবাদত করুন।

৩. ঘুরতে বের হন

সারাক্ষণ বাড়ি বা রুমে বসে থাকলে একঘেঁয়ে হয়ে ওঠে অবচেতন মন। তাই মন খারাপ থাকলে বাড়ি থেকে বের হন। বাইরে কোথাও যেতে ভালো না লাগলে ছাদে চলে যান। খোলা বাতাস, উন্মুক্ত আকাশ উপভোগ করুন। হাঁটতেও বের হতে পারেন।

৪. সাইক্লিং করুন

মন ভালো করার জন্য সাইক্লিং করতে পারেন। এতে বাইরের পরিবেশে একটু ঘোরাফেরাও হবে আবার শারীরিক ব্যায়ামও হবে বেশ। চেষ্টা করুন রোজ বিকালে সাইকেল নিয়ে বের হওয়ার। সাইকেল চালালে যে শুধু শরীর ও মন ভালো হবে তাই ই নয়, বরং আপনার মনযোগ ও বৃদ্ধি পাবে।

৫. বই পড়ুন

মন ভালো করার জন্য এই পদ্ধতিটি খুবই কার্যকরী। আপনার আগ্রহ অনুযায়ী আপনি নির্বাচন করুন। বই পড়ার বিশেষ উপকারের দিক হলো, আপনি নিশ্চয় সেখান থেকে কিছু না কিছু জানতে পারবেন। জীবন সম্পর্কে আপনার নতুন একটি ধারণা সৃষ্টি হবে। তাই মন খারাপ দূর করতে বই পড়াকে একটি মাধ্যম করে তোলাই যায়।

৬. যন্ত্রকে না বলুন

কিছু সময় মোবাইল কম্পিউটার থেকে দূরে থাকুন। সারাক্ষণ মোবাইল কম্পিউটার নিয়ে পড়ে থাকার ফলে অনেক সময়ই আমরা বাস্তব জীবনের সাথে নিজেদের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে ফেলি। পরিবেশের সাথে নিজেকে খাপ খাওয়াতে তখন বেশ কষ্ট হয়। প্রয়োজনের অতিরিক্ত প্রযুক্তি পণ্য ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। এতে শরীর ও মন দুইই ভালো থাকবে।

৭. ঘর গোছান

শুনতে কেমন কেমন মনে হলেও এটা সত্যি। মন ভালো করার জন্য ঘর গোছাতে পারেন। এর দুটি উপকার আছে। প্রথমত, আমাদের চারপাশ যদি সাজানো গোছানো পরিপাটি থাকে তবে স্বাভাবিক ভাবেই মনটা ভালো থাকে। দ্বিতীয়ত, ঘর গোছানোর মাধ্যমে আপনি নিজেকে ব্যস্ত রাখতে পারবেন। এতে আপনার শরীর মন দুইই ভালো থাকবে।

৮. শখের কাজ করুন

মন ভালো রাখার জন্য আপনি আপনার শখের বা প্রিয় কাজগুলো করতে পারেন। এতে আপনার সময় দ্রুত কেটে যাবে এবং মনটাও ভালো হয়ে যাবে।

৯. খাওয়াদাওয়া করুন

পেটে খিদা থাকলে স্বাভাবিক ভাবেই মন খারাপ থাকে। আর শারীরিক এবং মানসিক কারণেই মানুষের ভরা পেটে মন খুব কম সময়ই খারাপ হয়। তাই খাওয়াদাওয়া আপনার মন ভালো করার একটি মাধ্যম হতেই পারে।

১০. গোসল করুন

অধিকাংশ মানুষের ক্ষেত্রেই এই পদ্ধতিটা কাজ করে। মব খারাপ থাকলে গোসল করতে পারেন। এতে শরীরে সজীবতা ফিরে আসে। ফলে শরীরের পাশাপাশি মনটাও ভালো হয়ে যায়।

১১. খেলা করুন

আপনি খেলতে পছন্দ করেন তবে এই পদ্ধতিটা আপনার জন্য দারুন কাজের। কিছু সময় খেলাধুলা করলে শরীর ও মন সতেজ ও প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে।