জেনে নিন বুক জ্বালা থেকে মুক্তির ঘরোয়া ২০টি টিপস

বুক জ্বালা পোড়া একটি সাধারণ সমস্যা। অনেকেই এই সমস্যায় পড়েন। বিশেষ করে মহিলাদের এটি বেশি হয়। বুক জ্বালা করলে বমিবমি ভাব, শ্বাস নিতে কষ্ট, গলাব্যথা, গ্যাস, পেটেব্যথা ইত্যাদি দেখা দেয়। ভাজাপোড়া ও অ্যাসিডযুক্ত খাবার খেলে বুকে জ্বালাপোড়া অনুভূত হয়।

বুক জ্বালাপোড়া করলে কোনো কাজে মন বসানো কষ্টদায়ক হয়ে যায়। বুকের এই কষ্টদায়ক জ্বালাপোড়া থেকে মুক্তির জন্য “দেহ” আলোচনা করবে এই সমস্যার কারণ এবং জ্বালাপোড়া থেকে মুক্তির ২০টি টিপস নিয়ে। চলুন তাহলে মূল আলোচনায় আসা যাক।

বুক জ্বালার কারণ কী?

বিভিন্ন কারণে বুকে জ্বালা হয়ে থাকে। এগুলোর মধ্য রয়েছে-

১. প্রয়োজনের তুলনায় বেশি খাবার খেলে

২. চকলেট খেলে বুক জ্বালা করে

৩. চর্বিজাতীয় খাবার খাওয়ার ফলে বুকে জ্বালা হয়

৪. খাবার খাওয়ার পর ব্যায়াম করলে

৫. খাবার খাওয়ার সাথে সাথে শুয়ে পড়লে

৬. মানসিক চাপের কারণে

৭. স্থূলতার কারণে

৮. ধূমপান করার ফলে

৯. দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকার কারণে

১০. চা, কফি অধিকমাত্রায় গ্রহণ করলে

১১. সিরকাযুক্ত খাবার অধিক মাত্রায় খাওয়ায়

১২. আচার ও পিপারমিন্ট খাওয়ার ফলে

১৩. খাওয়ার সময় বেশি পানি পান করলে

১৪. আলসারের কারণে

১৫. অ্যালকোহল পান করলে

বুক জ্বালার সমাধান কী

বুক জ্বালা পোড়ার সমাধান

১. খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন

একবারে বেশি করে খাবার না খেয়ে অল্প অল্প করে খাবার খাবেন। খাবার চিবিয়ে খেতে হবে ভালো করে। এতে খাবার হজম হবে দ্রুত।

২. মশলাযুক্ত খাবার বাদ দেওয়া

বেশি ফ্যাট বা চর্বিজাতীয় খাবার বুক জ্বালার একটি কারণ। তাই যথাসম্ভব কম মশলা দিয়ে রান্না করতে হবে। ভাজা মাংসের পরিবর্তে ঝলসানো মাংস খেতে হবে। বেশি করে শ্বাকসবজি ও ফলমুল খেতে হবে।

৩. কোমল পানীয় ত্যাগ করুন

বুক জ্বালাপোড়া করলে অনেকে কোমল পানীয় পান করে। এটি মোটেও ঠিক নয়। এই সময়ে সবুজ চা বা হারবাল খেলে জ্বালা কমে যাবে।

৪. ঘুমের আগে খাবার খাওয়া

ঘুমানোর ৩—৪ ঘন্টা আগে খাবার খেতে হবে। এতে করে খাবার হজম হবে সহজে। এছাড়া ঘুমানোর সময় বিছানা থেকে মাথাকে ৪—৬ ইঞ্চি উপরে রেখে শুতে হবে।

৫. বেশি লবণ না খাওয়া

শুধু তেল মশলাই নয় বুক জ্বালা করার একটি অন্যতম কারণ হলো অধিক মাত্রায় লবণ খাওয়া। তাই লবণ খাওয়ার পরিমাণ কমিয়ে দিতে হবে।

৬. দুধপান করা

প্রতিদিন দুধপান করলে বুকের জ্বালাপোড়া থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়। তাই প্রতিদিন রাতে ১ গ্লাস করে দুধ পান করবেন।

৭. চা, কফি খাওয়া কমানো

আমরা চা, কফি সময়ে অসময়ে খেয়ে থাকি। অধিক মাত্রায় এইসব খাওয়ার ফলে বুকে জ্বালাপোড়ার মত সমস্যার সৃষ্টি হয়। তাই যতটা সম্ভব চা, কফি খাওয়া কমাতে হবে।

৮. ধুমপান থেকে বিরত

বুকে জ্বালাপোড়া করার একটি প্রধান কারণ ধূমপান। এই ধূমপান জ্বালাপোড়া ছাড়াও ক্যানসারের মতো রোগেরও সৃষ্টি করে। তাই ধূমপান করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

৯. খাবার গ্রহণের আগে পানি পান করা

যখন আমাদের ক্ষুধা লাগে তখন আমরা অধিক মাত্রায় খাবার খেয়ে ফেলি। ফলে বুকে জ্বালাপোড়ার সৃষ্টি হয়। তাই খাবার আগে ১ গ্লাস পানি পান করুন তাহলে বেশি করে খাবার গ্রহণের প্রবণতা কমে যাবে।

১০. লবঙ্গ

লবঙ্গ বুক জ্বালা রোধ করতে বিশেষ ভূমিকা রাখে। তাই বুক জ্বালা করলে লবঙ্গ চিবালে জ্বালা কমে যাবে।

১১. সবজি

বুক জ্বালা রোধে বেশি করে সবজি খাবেন। শিম, মিষ্টিকুমড়া, বাঁধাকপি, পেঁয়াজ ও গাজর বেশি করে খেলে বুক জ্বালা রোধ করা যায়।

১২. পুদিনা পাতা খাওয়া

পুদিনা পাতা অ্যাসিডিটি রোধে সহায়তা করে। তাই কিছু পুদিনা পাতা পানি দিয়ে সেদ্ধ করে খাওয়ার পরে খেতে পারেন। তাহলে বেশ উপকার পাবেন।

১৩. ডাবের পানি

বুকের জ্বালা কমাতে ডাবের পানি জাদুর মত কাজ করে। বুকের মধ্যে জ্বালা করলে ডাবের পানি খেয়ে নিন জ্বালা কমে যাবে।

১৪. ওজন কমানো

শরীরের অতিরিক্ত ওজনের ফলে বুকে জ্বালা হয়। তাই ওজন কমিয়ে ফেলতে হবে।

১৫. মানসিক চাপ কমানো

মানসিক চাপের কারণেও বুকে জ্বালা হয়ে থাকে। তাই মানসিক চাপ কমিয়ে আনতে হবে। সবসময় চাপমুক্ত থাকার চেষ্টা করতে হবে।

১৬. ঢিলেঢালা পোশাক

পোশাকের কারণে অনেক সময় জ্বালার সৃষ্টি হয়। তাই মোটা বেল্টের প্যান্ট না পরে ঢিলেঢালা পোশাক পরিধান করতে হবে

১৭. বেকিং সোডা

বেকিং সোডা যে কোনো জ্বালা নিমিষেই কমিয়ে দেয়। তাই ১ গ্লাস পানিতে ১ চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে পান করুন সাথে সাথে বুক জ্বালা কমে যাবে।

১৮. তুলসি পাতা

তুলসী পাতা বুক জ্বালা রোধে সাহায্য করে। বুক জ্বালা করলে তুলসী পাতা চিবিয়ে খেতে পারেন। এছাড়া ২ কাপ পানিতে ৫—৬ টি তুলসী পাতা ফুটিয়ে পানি ১ কাপ হলে গরম গরম পান করলে জ্বালা কমে যাবে।

১৯. অ্যালোভেরার জুস

খাওয়ার আগে আধা কাপ অ্যালোভেরার জুস পান করলে বুক জ্বালা দুর হয়ে য়াবে। তবে অতিরিক্ত পরিমাণে অ্যালোভেরার জুুস পান করলে ডাইরিয়ার সৃষ্টি হতে পারে। তাই পরিমিত পরিমাণে এটি গ্রহণ করতে হবে।

২০. আদা

বুকের জ্বালা রোধে আদা খেতে পারেন। ১ কাপ পানিতে ১ চামচ আদা কুচি জ্বাল দিয়ে পান করুন। এছাড়া আদা কুচি চিবিয়ে খেলেও ভালো ফল পাবেন।

বুক জ্বালা সাধারণত হজমের সমস্যার কারণে হয়। তাই আপনি চাইলেই এই সমস্যার সমাধান করতে পারেন বাড়িতেই। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ‘দেহ’ আপনাদের যে ঘরোয়া উপায়গুলো বলে দিলো সেগুলো আপনি অবশ্যই প্রয়োগ করার চেষ্টা করবেন।