অসাধারণ স্বাদের নকশী ফুল পিঠা

শীতকালের বিভিন্ন পিঠার মধ্যে নকশী পিঠার আবেদন বাঙালির কাছে সর্বজনীন। তবে শহরের যান্ত্রিক জীবনে বসে নকশী পিঠা খাওয়ার সুযোগ কই? চিন্তার কিছু নেই। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক পিঠা তৈরির পদ্ধতি-

উপকরণ- আতপ চালের গুঁড়া ১ কেজি, লবণ ১ চা চামচ, পানি পরিমাণ মতো, ভাজার জন্য তেল ১ লিটার।
সিরার জন্য- গুড় ১কেজি, পানি ২ কাপ।
পিঠার নকশা কাটার জন্য লাগবে- খেঁজুর কাটা অথবা টুথপিক, বেলন-পিড়ি।

প্রণালী- আতপ চালের গুঁড়া চালুনি দিয়ে ভালো করে চেলে নিন। চুলায় পানি গরম করে লবণ দিতে হবে। ভালো করে ফুটে গেলে চালের গুড়া দিয়ে দিন। আঁচ কমিয়ে ভালো করে সেদ্ধ করে রুটির কাই করে নিন।

হাতে ভালো করে মথে মসৃণ ডো বানিয়ে নিন। বেলন-পিড়িতে বেশ খানিকটা ডো নিয়ে মোটা রুটি বেলে নিন। একটা বাটিতে অল্প তেল আর অল্প পানি মিশিয়ে নিন।

রুটির উপর এই পানি ও তেলের মিশ্রণটা কয়েক ফোটা লাগিয়ে নিন। এতে নকশা কাটা সুন্দর ও মসৃণ হবে। পিঠার উপর খেঁজুর কাটা বা টুথপিক দিয়ে পছন্দমত নকশা করে নিন।

ধারের খাঁজকাটা নকশার জন্য টিনের পাত ব্যবহার করা হয়। এভাবে সবগুলো পিঠা বানানো হলে ডুবো তেলে একবার হালকা করে ভেজে তুলে নিন।

কড়া রোদে ২ থেকে ৩ দিন শুকিয়ে নিন। এভাবে এয়ার টাইট বক্সে ১ থেকে ২ মাস সংরক্ষণ করা যায় এই পিঠা। পরিবেশনের আগে আবারো ডুবো তেলে মুচমুচে করে ভেজে তুলে নিন।

গুড় ও পানি জ্বাল করে সিরা করে নিন। ভাজা পিঠা একবার সিরায় চুবিয়ে তুলে নিন। পরিবেশন করুন মুচমুচে মজাদার নকশী ফুল পিঠা।