মেয়েদের জরায়ু মুখের ক্যান্সারের লক্ষণ জানুন এবং সতর্ক হোন

জরায়ু মুখের ক্যান্সারের প্রাথমিক পর্যায়ে প্রায় ক্ষেত্রেই কোন লক্ষণ থাকেনা। যখন লক্ষণ প্রকাশ পায়, তখন রোগটি অনেক জটিল পর্যায়ে চলে যায়। যে কারনে রোগটি প্রাথমিক পর্যায়ে নির্ণয়ের জন্য নিয়মিত স্ক্রিনিং টেস্ট খুবই জরুরি।

১. অস্বাভাবিক রক্তস্রাব অধিকাংশ ক্ষেত্রে জরায়ু মুখের ক্যান্সারের যে লক্ষণটি প্রথমে দেখা দেয়, সেটি হলো যোনিপথে অস্বাভাবিক রক্তস্রাব। মূলত যৌন মিলনের পর পরই এমনটা হয়ে থাকে। মাসিকের নিয়মিত সময় ছাড়া অন্য যে কোন সময়ে যোনিপথে রক্ত দেখা গেলে, সেটাই অস্বাভাবিক রক্তস্রাব। প্রাকৃতিক নিয়মে নির্দিষ্ট বয়সে মাসিক বন্ধ হয়ে যাবার পর যদি কখনো যোনিপথে রক্ত দেখা যায়, সেটাও অস্বাভাবিক রক্তস্রাব । এসব ক্ষেত্রে দ্রুত ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করতে হবে।

অন্যান্য আরো যেসব লক্ষণ দেখা যেতে পারে

– সহবাসের সময় ব্যথা এবং অস্বস্তি

– বাজে গন্ধযুক্ত যোনি স্রাব যখন জরায়ু মুখের ক্যান্সার জটিল রূপ ধারন করে তখন এই পর্যায়ে জরায়ু মুখের ক্যান্সার তার আশেপাশের কোষে এবং অঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে।

তখন নিম্নলিখিত লক্ষণগুলো দেখা দেয়-

– কোষ্ঠকাঠিন্য

– প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত

– মুত্রত্যাগ চেপে রাখার ক্ষমতা কমে যাওয়া

– হাড়ে ব্যথা – যে কোন এক পা ফুলে যাওয়া

– পিঠের নিচের দিকে মধ্যখানে বা যে কোন একপাশে তীব্র ব্যথা (কিডনি আক্রান্ত হওয়ার কারনে, কিডনি ফুলে গিয়ে বাড়তি চাপ দেয়ার কারনে হয়)

– পায়খানা প্রসাবের নিয়মিত অভ্যাস পরিবর্তিত হয়ে যাওয়া

– ক্ষুদামন্দা

– ওজন কমে যাওয়া

– ক্লান্ত এবং দুর্বল লাগা উপরিউক্ত যেকোনো লক্ষন দেখা দিলে অবশ্যই গাইনি ডাক্তারের শরনাপন্ন হতে হবে।