বাসি ভাত পুনরায় সঠিক ভাবে গরম করার পদ্ধতি শিখে নিন

চাল মেপে ভাত করলেও অনেক সময়ে কিছুটা ভাত বেঁচে যায়। তখন সেই বেঁচে যাওয়া ভাত অনেকেই ফেলে দেন কিংবা সকালে ঠাণ্ডা বা গরম করে খেয়ে ফেলেন। অনেকেই আবার ভাতে পানি দিয়ে সকালে পান্তা ভাত খান। বেঁচে যাওয়া ভাত ফ্রিজেও রাখা হয়।

তবে জানেন কি, বাসি ভাত খাওয়ার আগে বেশ কিছু জিনিস মানা উচিত। সেটি ঠিক পদ্ধতিতে গরম না করলে পেটে সংক্রমণও হতে পারে। তাই জেনে নিন পুরনো ভাত খেতে গেলে কীভাবে গরম করা উচিত-

>> অনেকেই মাইক্রোওয়েভে খাবার গরম করেন। সেক্ষেত্রে ওভেনের উপযোগী পাত্রে ভাত রাখুন। ফ্রিজে রাখা ভাত যদি একটু দলা পাকিয়ে গিয়ে থাকে, তাহলে চামচ দিয়ে সেটি ভেঙে নিন। প্রতি ১ কাপ ভাতে ১ টেবিল চামচ করে পানি মেশান। পানি দেওয়া হয়ে গেলে পাত্রটি ঢাকনা দিয়ে ২ মিনিট মাইক্রোওয়েভে বেশি তাপমাত্রায় গরম করুন।

>> গ্যাসে গরম করতে হলেও পাত্রে ভাত নিন। প্রতি কাপ অনুযায়ী ১ টেবিল চামচ করে পানি দিন। পানি দিতে না চাইলে সামান্য মাখন ব্যবহার করতে পারেন। এবার পাত্রটি ঢাকা দিয়ে মাঝারি আঁচে মিনিট পাঁচেক গরম করুন।

>> ভাত কেবল গরম না করে ভেজেও নিতে পারেন। তার জন্য লাগবে ডিম, পেঁয়াজ, মরিচ, গাজর, বিনস। এটি খেতে অনেকটা ফ্রায়েড রাইসের মতো হবে। একটি পাত্রে ১ টেবিল চামচ তেল গরম করে তাতে ডিম, পেঁয়াজ, মরিচ, গাজর ও বিনস দিয়ে দিন। ভালো করে সবজিগুলো ভেজে তাতে বাসি ভাত দিয়ে নাড়ুন। ভাজা ভাজা হয়ে গেলে ঢাকনা দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে গরম গরম পরিবেশন করুন।