ডায়েট ছাড়া শুধু মাত্র পানি খেয়ে ওজন কমানোর পদ্ধতি

দ্রুত ওজন কমাতে অনেকেই বিভিন্ন ডায়েট অনুসরণ করেন। যেমন- ক্র্যাশ ডায়েট, ইন্টারমিটিং ফাস্টিংসহ নানা ধরনের ডায়েট। এছাড়াও অনেকেই জিমে ঘিয়ে ঘাম ঝরান। এতে দ্রুত ওজন কমে। কিন্তু এই সবকিছুর কারণে শরীরের উপর বাড়তি চাপ পড়ে।

দ্রুত ওজন কমানোর অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ওজন দ্রুত কমাতে গেলে শারীরিক নানা সমস্যায় দীর্ঘমেয়াদী ভুগতে হতে পারে।

ওজন কমানোর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি সহায়ক হলো মানসম্মত জীবনযাপন করা। অনেকেই এখন কর্মব্যস্ততার খাতিরে শরীরচর্চা করার সময় পান না। তাহলে তারা কীভাবে ওজন কমাবেন?

ওজন কমাতে ভরসা রাখতে পারেন জাপানি পদ্ধতিতে। এক্ষেত্রে পানি খেয়েই ঝরিয়ে ফেলতে পারেন শরীরের বাড়তি মেদ! বহু বছর ধরেই জাপানিরা এই ওয়াটার থেরাপির উপর আস্থা রেখেছেন।

ওয়াটার থেরাপির মাধ্যমে ওজনও ঝরাতে পারবেন, আবার সুস্থ থাকবে আপনার পাকস্থলীও। একইসঙ্গে বদহজম, গ্যাস্ট্রিকসহ পেটের যাবতীয় সমস্যাও দূর হবে। জেনে নিন কীভাবে করবেন ওয়াটার থেরাপি-

সকালবেলা ঘুম থেকে উঠেই খালি পেটে ৪-৫ গ্লাস পানি পান করুন। দাঁত ব্রাশ করার পর আরো কিছুটা পানি খেয়ে ৪০ মিনিট খালি পেটে থাকুন। তারপর খাবার খান।

প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট সময়ে খাবার খেতে হবে। খাবার খাওয়ার অন্তত ২ ঘণ্টা পর পানি খান। দাঁড়িয়ে কখনো পানি খাবেন না কোথাও বসে পানি পান করুন। প্রথমেই এতো বেশি পানি খেতে না পারলে ধীরে ধীরে পরিমাণ বাড়ান। প্রতিদিনকার ডায়েটে খাবারের পরিমাণ খুব একটা কমানোর দরকার নেই। তবে পানি খাওয়ার পরিমাণটা বাড়ান।

ওয়াটার থেরাপিতে প্রচুর পরিমাণে পানি খেতে হয়। যা শরীরের বিপাকের হার বাড়ায়। এর ফলে শরীরের বাড়তি মেদ সহজেই ঝরে যায়। এছাড়াও পানি খেলে শরীর থেকে টক্সিন বের হয়ে যায়। যা দ্রুত ওজন কমায়।