হঠাৎ বুক ধড়ফড় করলে ভয় ও চরম অস্বস্তিও হয়, দেখুন আপনার করনীয়

বুক ধড়ফড় করা কোনো রোগ নয়, রোগের উপসর্গ। বুক ধড়ফড় করলে আক্রান্ত ব্যক্তি সমস্যার বিভিন্ন রকম বর্ণনা দেন। কেউ শ্বাসকষ্টের কথা বলেন, কেউ বুকে ব্যথার কথাও বলেন। বুক ধড়ফড় করলে ভয় হয়, চরম অস্বস্তিও হয়। এই বুঝি প্রাণটা গেল। সব সময় যে জটিল কোনো রোগের কারণে বুক ধড়ফড় করে, তা নয়। তারপরও বিষয়টি একেবারে অবহেলার নয়।

বুক ধড়ফড় করার সবচেয়ে পরিচিত কারণ দুশ্চিন্তা। হঠাৎ অতিরিক্ত পরিশ্রম, ব্যায়াম, অতিরিক্ত মানসিক চাপ, ধূমপান, অতিরিক্ত আবেগ, উচ্ছ্বাস সাময়িকভাবে হৃৎস্পন্দন বাড়িয়ে দিতে পারে। এটি স্বাভাবিক। কিছু কিছু ওষুধও হৃৎস্পন্দন বাড়ায়। এ ছাড়া কিছু শারীরিক রোগে দ্রুত নিয়মিত বা অনিয়মিত হৃৎস্পন্দন হয় এবং তখন বুক ধড়ফড় করে। যেমন অতি সক্রিয় থাইরয়েড গ্রন্থি, অনেক জ্বর, পানিশূন্যতা, র’ক্তচাপ বা র’ক্তে শর্করা হঠাৎ কমে যাওয়া, র’ক্তশূন্যতা বা অ্যানিমিয়া ইত্যাদি। হৃদ্যন্ত্রের কিছু সমস্যায় বুক ধড়ফড় করতে পারে। যেমন হার্টের ভাল্ভে সমস্যা, জন্মগত হৃদ্রোগ, হার্ট ফেইলিউর, অনিয়মিত হৃৎস্পন্দন ইত্যাদি।

বুক ধড়ফড় করলে তাৎক্ষণিক বিশ্রাম নিন। যদি অতিরিক্ত পরিশ্রম, ব্যায়াম বা অতিরিক্ত মানসিক চাপ, ধূমপান, আবেগ, উচ্ছ্বাসের কারণে বুক ধড়ফড় হয়ে থাকে, তাহলে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন। তবে বিশ্রামরত অবস্থায় বুক ধড়ফড় করলে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। হৃৎস্পন্দন হঠাৎ বেড়ে গিয়ে বা অনিয়মিত হলে রোগী অজ্ঞানও হয়ে পড়তে পারে। এ সময় মাথা ঝিমঝিম, মাথা শূন্য বোধ হওয়া বা মাথা ঘোরার মতো উপসর্গ দেখা দেয়। এ রকম হলে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া জরুরি।