বাড়ীতে বসেই নতুন মায়েদের শারীরের বাড়তি মেদ ঝরানোর কৌশল শিখে নিন

মা হওয়ার সময় নারীদের বিভিন্ন ধরনের শারীরিক পরিবর্তন হয়ে থাকে। এর ফলে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন অনেকেই। কারণ এসময় ওজন বেড়ে যায় সেইসঙ্গে শারীরিক বিভিন্ন জটিলতার সম্মুখীণ হতে হয়। সদ্য যারা মা হয়েছেন তারা শরীরের বাড়তি মেদ নিয়েও চিন্তিত থাকেন।
তবে নিয়ম মেনে কিছু ব্যায়াম করে ঝড়িয়ে ফেলতে পারেন বাড়তি মেদটুকু। ভাবছেন বাচ্চা সামলে জিমে যাবার এত সময় কোথায়? না জিমে নয় বাড়িতেই করতে পারেন সহজ এই ব্যায়ামগুলো।

কিছু সময় হাঁটুন

সকালে বা বিকালে কিছু সময়ের জন্য হাঁটতে পারেন। হাঁটার জায়গা না থাকলে ঘরেই হাঁটুন। প্রথমে আপনার পা দুটি সমানে রেখে হাত দুটি কোমরে রাখুন। সামনের দিকে একটি পা এগিয়ে দাঁড়ান। এবার পায়ের গোড়ালি উঁচু করে পায়ের পাতার ওপরে চাপ দিয়ে দাড়িয়ে থাকুন কিছুক্ষণ। আবার আগের অবস্থানে ফিরে আসুন। এটি ডান পা থেকে শুরু করে পরবর্তিতে বা পা দিয়ে করুন। এভাবে ১০ থেকে ১৫ বার পর্যন্ত একসময়ে করুন।

পেটের ব্যায়াম

ব্যায়ামে যদি আপনি আগে থেকে অভ্যস্ত না থাকেন। তবে এই ব্যায়ামটি দিয়ে শুরু করুন। প্রথমে বিছানায় সোজা হয়ে শুয়ে পড়ুন। দুই হাঁটু ভাঁজ করে পেটের কাছে নিয়ে আসুন। এই অবস্থায় নিশ্বাস বন্ধ রাখুন। এবার নাভীর ওপর তর্জনি রেখে পেটে চাপ দিন। এই অবস্থায় ধীরে ধীরে নিঃশ্বাস ছাড়ুন। আবার শ্বাস নিন এবং ছাড়ুন।

আবার শ্বাস নিন এবং ধীরে ধীরে শ্বাস ছেড়ে দিন। এভাবে কয়েকবার করুন। এটি প্রতিদিন ৩০ সেকেন্ড করুন। পেট প্রসারিত এবং সংকোচনের মাধ্যমে এটি আপনার পেটের ওপর চাপ ফেলবে যা পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করবে। আপনি চাইলে সন্তান জন্ম দেয়ার দুই সপ্তাহের পর থেকে ব্যায়াম শুরু করতে পারবেন।

পায়ের ব্যায়াম

এই ব্যায়ামটি পেটের সঙ্গে সঙ্গে পায়ের মাংসপেশীতে যুক্ত হওয়া বাড়তি মেদ ঝড়াতে বেশ কার্যকর। বিছানায় সোজা হয়ে শুয়ে পড়ুন। হাত দু’টি মাথার পিছনে নিয়ে যান। কোমর যথাসম্ভব সোজা রেখে পা দু’টি ধীরে ধীরে ওপরে তুলুন। আপনার পা দু’টি প্রসারিত করুন। সেই সঙ্গে হাত দু’টিও মাথার ওপর প্রসারিত করুন। এইভাবে ৮ থেকে ১০ বার করুন।

প্ল্যাঙ্ক

যারা নিয়মিত ব্যায়াম করেন তারা বা এ সম্পর্কে খোঁজ রাখেন তারা মোটামুটি প্ল্যাঙ্কের সঙ্গে পরিচিত। প্ল্যাঙ্ক এক ধরনের আইসোমেট্রিক বা স্ট্যাটিক ব্যায়াম। যার বিশেষত্ব হল শরীরটাকে একটা নির্দিষ্ট ভঙ্গিমায় ধরে রাখা। যেটি আপনার ঘাড় এবং পিঠের মেদ কমাতে সাহায্য করবে। এছাড়াও প্ল্যাঙ্ক করলে আপনার পেটের পেশীর ওপরও টান পড়ে। ফলে পেটের মেদ কমে যায় খুব দ্রুত।