শামিয়ানা থেকে ফুলমালা রঙিন গাঁদাফুলে, ছবিতে ছবিতে দেখুন রাজকুমার-পত্রলেখার বিয়ের অনুষ্ঠান

কবে তাঁদের বিয়ে হবে? জুটিকে ঘিরে এই প্রশ্ন ঘোরাফেরা করত অনেকদিন ধরেই৷ রাজকুমার রাও এবং পত্রলেখা অবশ্য কোনও তাড়াহুড়ো করেননি৷ সময় দিয়েছেন তাঁদের সম্পর্ক ও প্রেমকে (Rajkumar Rao and Patralekha wedding) ৷

এক দশকেরও বেশি সময় লিভ ইনের পর অবশেষে বিয়ে করলেন তাঁরা৷

জীবনযাত্রার মতো তাঁদের বিয়ের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা প্রত্যেক পর্ব ছিল ছিমছাম৷ বিয়ের নিমন্ত্রণ পর্বও সাদামাটা৷ পাল এবং রাও, দুই পরিবারের তরফে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে অভ্যাগতদের৷

চণ্ডীগড়ের ‘ওবেরয় সুখবিলাস স্পা রিসর্টে বসেছিল বিয়ের আসর৷ আমন্ত্রিত ছিলেন আত্মীয় পরিজন এবং ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবরা৷ বরকনের সাজ থেকে বিয়ের আসর, সবই ছিল আড়ম্বরহীন৷ মালাবদলের মালা এবং বিয়ের আসরের শামিয়ানায় ছিল গাঁদাফুলের উজ্জ্বল উপস্থিতি৷

রাজকুমার পরেছিলেন সাদা শেরওয়ানি ও গোলাপি উত্তরীয়৷ মাথায় লাল পাগড়ি৷ পত্রলেখা সেজেছিলেন লাল লেহঙ্গায়৷ তাঁর ওড়নায় সোনালি জরিতে বোনা ছিল ‘আমার পরান ভরা ভালোবাসা আমি তোমায় সমর্পণ করিলাম৷’ বাঙালিনী নববধূর হাতের ভারী গয়নার পাশে ছিল চিরাচরিত শাঁখা ও পলা৷

অভিনেয়র সূত্রেই একে অপরের সঙ্গে পরিচয় রাজকুমার ও পত্রলেখার৷ রাজকুমারের বিপরীতে ‘সিটিলাইটস’ ছবিতে বলিউডি সিনেমায় আত্মপ্রকাশ পত্রলেখার৷ দীর্ঘ এক দশকেরও বেশি সময় ধরে লিভ ইনের পর অবশেষে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন তাঁরা৷

চণ্ডীগড়ের এই স্পা-এই আয়োজিত হয়েছিল রাজকুমার এবং পত্রলেখার বাগদান অনুষ্ঠান৷ সেই অনুষ্ঠানে রাজকুমার এবং পত্রলেখা, দু’জনের এবং অতিথিদের পরনেও ছিল সাদা রঙের পোশাক৷ অনুষ্ঠানে হাঁটু মুড়ে বসে পত্রলেখাকে প্রোপোজ করেন রাজকুমার৷

তাঁর বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার আগেই পত্রলেখা প্রস্তাব দেন৷ দু’জনেই দু’জনের প্রস্তাব স্বীকার করার পর আংটি পরিয়ে দেন একে অন্যকে৷ তাঁদের প্রোপোজ দৃশ্য এখন সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল৷

তাঁদের বাগদান অনুষ্ঠানে অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে ছিলেন শাকিব সালিম এবং ফরাহ খান৷ এনগেজমেন্ট অনুষ্ঠান তথা প্রি-ওয়েডিং পার্টির ছবি ঘিরে উচ্ছ্বসিত নেটিজেনরা ৷

নববিবাহিত দম্পতিকে আগামী দিনগুলির জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অনুরাগীরা ৷

নেটিজেন হৃদয় জয় করেছে তাঁদের রাজকুমার পত্রলেখার বিয়ের ছবি ৷