লবণের বডি স্ক্রাব ও অলিভ অয়েল ব্যবহার করে ম্যাজিক দেখুন রাতারাতি

অলিভ অয়েলের কদর বিশ্বজুড়েই। রান্নার পাশাপাশি সৌন্দর্যচর্চায় অলিভ অয়েল জাদুকরী ব্যবহার সম্পর্কে সবাই কমবেশি জানেন! বহু যুগ আগে থেকেই বিভিন্ন বিউটি ট্রিটমেন্ট করার জন্য এই তেল ব্যবহার হয়।

অলিভ অয়েলের মধ্যে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট‚ বিভিন্ন মিনারেল ছাড়াও আছে প্রাকৃতিক ফ্যাটি অ্যাসিড যা আমাদের ত্বকের জন্য খুব উপকারি। খুব অল্প সময়ের মধ্যে যদি আপনি নরম এবং উজ্জ্বল ত্বক চান তা হলে কিন্তু অলিভ অয়েলের জুড়ি নেই। আজকে রইলো অলিভ অয়েল এবং লবণ দিয়ে একটা বডি স্ক্রাবের রেসিপি। যা একবার ব্যবহারের পরেই তফাৎ দেখতে পাবেন।

কীভাবে বানাবেন এই স্ক্রাব?

আধা কাপ অলিভ অয়েলের মধ্যে কোয়াটার কাপ লবণ মিশিয়ে নিন। যে লবণ দিয়ে রান্না করেন তা-ও ব্যবহার করতে পারেন। আবার যারা বাথ সল্ট ব্যবহার করেন সেটা দিয়েও এই স্ক্রাব তৈরি করতে পারেন। একটা গাঢ় পেস্ট বানান। এতে এক চা চামচ লেবুর রসও মেশাতে পারেন। এরপর এই পেস্ট শরীরে লাগান। লাগানোর সময় গোল করে মালিশ করুন। ৫ মিনিট এই মিশ্রণ গায়ে রেখে ঠান্ডা বা হালকা গরম পানিতে ধুয়ে নিন।

এই এক্সফলিয়েটিং স্ক্রাব আপনি ফাটা গোড়ালি সারানোর জন্যেও ব্যবহার করতে পারেন। প্রথমে গোড়ালি ভালো করে পিউমিক বা ঝামা পাথর দিয়ে ঘষে নিন। এবার অলিভ অয়েল এবং লবণের পেস্ট পায়ের পাতায় এবং গোড়ালিতে লাগান। গোড়ালি এবং পায়ের পাতা ভালো করে ম্যাসাজ করুন। খানিক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন।

ভালো উপকার পেতে রাতে শোয়ার আগে এটা করুন। সারা রাত এই পেস্ট পায়ের পাতায় এবং গোড়ালিতে লাগিয়ে রাখুন। পায়ে একটা মোজা পরে নিন। তাহলে আর্দ্রতা বেরিয়ে যেতে পারবে না আবার একই সঙ্গে বিছানা নোংরা হবে না।

অলিভ অয়েল আর লবণের পেস্ট কীভাবে কাজ করে?

অলিভ অয়েল ত্বককে নরম করতে পারে। অন্যদিকে লবণ মৃত কোষ তুলে ফেলতে সাহায্য করে। এছাড়াও লবণের মধ্যে বিভিন্ন মিনারেল আছে যা আমাদের ত্বককে পুষ্টি যোগায়।

কোন অলিভ অয়েল ব্যবহার করা উচিত?

বাজারে বিভিন্ন ধরনের অলিভ অয়েল পাওয়া যায় যেমন এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল‚ ভার্জিন অলিভ অয়েল‚ লাইট অলিভ অয়েল‚ পিয়োর অলিভ অয়েল প্রভৃতি। এর মধ্যে সব থেকে ভালো অবশ্যই এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল। তবে ভার্জিন অলিভ অয়েল দিয়েও কাজ চালাতে পারেন।