জেনে নিন মেকআপ ছাড়া সুন্দরী হওয়ার ১০টি দারুন টিপস

রূপচর্চা মেয়েদের দৈনন্দিন কাজের অংশ। সাজগোজ না করে যেন লোকের সামনে মুখ দেখানোই দায়! যারা এমনটা করেন, তাদের কাছে এটা এক ধরনের শিল্প। কিন্তু এই শিল্পচর্চার জন্য প্রচুর অর্থব্যয় এবং সময় দেওয়া প্রয়োজন। তবে কোনো মেকআপ ছাড়াও নিজেকে সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা সম্ভব বলে আমরা মনে করি।

আজ দেহ আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি এমনই ১০টি টিপস যা আপনাদের সৌন্দর্যকে মেকআপ ছাড়াই বহুগুণ বাড়িয়ে দেবে। আর খরচ কমবে অর্থের এবং সময়ের। তাহলে চলুন দেরি না করে টিপসগুলো জেনে নেওয়া যাক।

১. সিল্কের বালিশের কভার

ঘুমিয়ে থেকেও আপনার সৌন্দর্য বাড়িয়ে নিতে পারেন। এজন্য আপনার বালিশকে সিল্কের কভার দিয়ে মুড়িয়ে নিতে হবে। সিল্কের কভার ব্যবহার করলে আপনার ত্বক এবং চুলে কম ঘষা লাগবে, যা ত্বকের কোষের ক্ষতি এবং প্রদাহ থেকে আপনাকে রক্ষা করবে।

সিল্কের কভার আমাদের চুল এবং ত্বক পরিষ্কার রাখতেও সাহায্য করে।

২. স্যালিসাইলিক অ্যাসিড ব্যবহার

মৃত কোষ পরিষ্কার না করলে আমাদের ত্বকের ক্ষুদ্রাতি ক্ষুদ্র ছিদ্রগুলো বন্ধ করে করে দেয় এবং ত্বকের নানা সমস্যা তৈরিতে নেতিবাচক ভূমিকা রাখে।

স্যালিসাইলিক অ্যাসিড আপনাকে এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে, যা ত্বকের গভীর থেকে ময়লা বের করে এনে এই ছিদ্রগুলো খুলে দেয় এবং নতুন কোষের পথ সুগম করে তোলে। ফলে আপনার চেহারায় আসে দীপ্তিময় উজ্জ্বলতা।

৩. রূপচর্চা হিসাবে মুখমণ্ডল ম্যাসাজ

চেহারায় তারুণ্য ফিরিয়ে আনতে মুখমণ্ডল ম্যাসাজ হতে পারে চমৎকার উপায়। এর জন্য আপনাকে বিউটি পার্লারে যেতে হবে এমন নয়।

বাড়িতে বসেই ম্যাসাজ করে নিজের সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলতে পারেন বহুগুণ। তবে খেয়াল রাখতে হবে, অতিরিক্ত ঘর্ষণের ফলে যেন হিতে বিপরীত না হয়।

৪. ভ্রুর পরিচর্যা

নানা ভাবে ভ্রু সাজাতে পারেন আপনি। অনেক আকার আকৃতি দিতে পারেন চাইলেই। কখনো একটু মোটা কখনো একটু সরু। কিন্তু আপনার সঙ্গে মানানসই ভ্রুর গড়ন কোনটা তা ঠিক হয়ে গেলে নিয়মিত তার পরিচর্যা করতে হবে। ইন্টারনেট দেখে নিজেই শিখে নিন কীভাবে ভ্রুর পরিচর্যা করতে হয়।

৫. চোখের পাপড়িতে ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহার

গবেষণায় দেখা গেছে, ক্যাস্টর অয়েল চোখের পাপড়ি কিংবা চুলের স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। আপনি চান পাপড়িগুলো বড়ো দেখাক, তাহলে ক্যাস্টর অয়েল হতে পারে চমৎকার সমাধান।

যদিও ক্যাস্টর অয়েল চোখের পাপড়ি দ্রুত বৃদ্ধিতে কোনো ভূমিকা রাখে না, কিন্তু এটি ব্যবহারে পাপড়ি ঘন এবং উজ্জ্বল দেখায়।

৬. নিউট্রিশনের জন্য সিরাম ব্যবহার

ত্বক সুস্থ এবং সজীব রাখতে স্কিন সিরাম ব্যবহার করতে পারেন, যা বলিরেখা, কালো দাগ অথবা মলিনতার দূর করে আপনার ত্বকের বয়স ধরে রাখতে সাহায্য করবে। আর এর জন্য মাত্র কয়েক ফোটা সিরামই যথেষ্ট।

তবে মনে রাখতে হবে, সব সিরাম একই রকম উপকারে আসে না এবং এদের গুণাগুণ নির্ভর করে এগুলোতে ব্যবহৃত উপদানের ওপর। তাই আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী সিরাম কেনার জন্য বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে পারেন।

৭. রূপচর্চা ও লেবুপানি

ভিটামিন সি আমাদের ত্বকের জন্য কতটা উপকারী তা বলার অপেক্ষা রাখে না। গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে, নিয়মিত ভিটামিন সি খেলে প্রাপ্তবয়স্ক নারীদের ত্বক উজ্জ্বল হয় এবং বলিরেখা ও চোখের নিচের কালি মিলিয়ে যায়।

তাই ত্বক ভালো রাখতে প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস গরম পানির সাথে লেবু মিশিয়ে খেতে পারেন।

৮. সানস্ক্রিন ব্যবহার করে রূপচর্চা

সানস্ক্রিন ব্যবহারে আপনার ত্বক যে শুধু রোদের হাত থেকেই বাঁচে তা নয়, ত্বককে বয়সের ছাপ, বলিরেখা, প্রদাহ, দাগ ইত্যাদি থেকেও রক্ষা করে।

শুধু তাই নয়, ত্বকের কোমলতা ও তারুণ্যের জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান যেমন ক্যারাটিন প্রোটিনও উজ্জীবিত করে। ত্বকের বিভিন্ন রোগের পাশাপাশি স্কিন ক্যানসারের ঝুঁকিও কমায় সানস্ক্রিন।

৯. রক্ত চলাচল ঠিক রাখুন

দেহের রক্ত চলাচল ব্যবস্থা যার যত বেশি ভালো, তার ত্বক ততো বেশি তরুণ এবং স্বাস্থ্যোজ্জ্বল। কারণ ত্বক তার জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান রক্তের মাধ্যমেই পেয়ে থাকে।

তাই সুন্দর ত্বকের জন্য অ্যারোবিক এক্সারসাইজ, প্রচুর পানি পান করা এবং শারীরিক পরিশ্রম করা জরুরি।

১০. নিজস্বতায় মনোযোগ দিন

প্রত্যেকের নিজস্বতারও একটি সৌন্দর্য আছে। সেই সৌন্দর্যের প্রতিও নজর দিন। কোন ধরনের পোশাক আপনাকে মানায়, কোন জিনিসে আপনাকে আকর্ষণীয় দেখায় এই বিষয়গুলোর প্রতি মনোযোগ দিলে আপনার সৌন্দর্য আটকে রাখার উপায় নেই।

আপনি হয়ে উঠবেন অন্যদের চেয়ে আলাদা এবং আকর্ষণীয়।

মেকআপ ছাড়া আর কোন কোন উপায়ে আপনি নিজেকে সাজিয়ে তোলেন? প্লিজ দেহ’র পাঠকদের সাথে শেয়ার করুন আপনার রূপের গোপন রহস্য।