বাড়তি মেদ কমানোর এই ১০ টি সহজ উপায় আপনাকে দেবে আকর্ষণীয় ফিগারও

মেদ কমানোর জন্য আমাদের চেষ্টার অন্ত নেই। প্রযুক্তি যত উন্নত হচ্ছে, ঠিক ততই সহজ হচ্ছে আমাদের জীবনযাত্রার মান। আর সেই সাথে সাথে বাড়ছে অনিয়ন্ত্রিত জীবন যাপন। আর তার সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে শরীরে মেদের পরিমাণ। ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এর বেশি ভুক্তভোগী। অতিরিক্ত মেদের কারণে একজন মানুষকে দেখতেও খারাপ লাগে, এছাড়া জামা কাপড় পরলে পেট বেড় হয়ে থাকা সহ বিভিন্ন অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়।

কিন্তু চিন্তার কোন কারণ নেই, যে কোন সমস্যারই সমাধান আছে। আর আমরা ‘দেহ’ সবসময়ই আপনাদের স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা করি। তাই আজ আমরা আপনাদের মেদ কমানোর এমন ১০টি সহজ উপায় বলে দেব যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই পাবেন আকর্ষণীয় ফিগার।

১. আঁশ জাতীয় খাবার

আঁশ জাতীয় খাবারে কম পরিমাণে ক্যালরি থাকে কিন্তু প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও মিনারেল থাকে,আমাদের শরীরে মেদ জমতে দেয় না। তাই গাজর, ফুলকপি, শসা, টমেটো, ব্রকলি ইত্যাদি খাবার বেশি করে খাবেন। যা আপনার শরীরের মেদ কমাতে সাহায্য করবে।

২. প্রোটিন জাতীয় খাবার

প্রোটিন জাতীয় খাবারের সরাসরি মেদ কমানোতে কোন ভূমিকা নেই। কিন্তু উচ্চ প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার আমাদের হজমকে ত্বরান্বিত করে যার মাধ্যমে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি ক্যালরি বার্ন করে। প্রোটিন মাংসপেশি গঠনে ভূমিকা রাখে যা কিনা শরীরের চর্বি বা মেদ কমাতে সাহায্য করে। তাই প্রতিদিন সীমিত পরিমাণে মাছ, ডাল, মাংস, ডিম খেতে পারেন।

৩. ফ্যাট ফ্রি তেল দিয়ে রান্না করা

অলিভ অয়েলে ফ্যাটের পরিমাণ কম। দ্রুত মেদ কমাতে কার্যকারী। এতে থাকে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং এর বেশির ভাগই মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট। তাই মেদ কমানোর জন্য এর ব্যবহার করা হয়।

৪. ফ্যাট যুক্ত খাবার বর্জন

দ্রুত মেদ কমাতে চাইলে ফ্যাট জাতীয় খাবার খাওয়া যাবে না। ফ্যাট খাওয়া না কমালে কোনভাবেই মেদ কমবে না। বিশেষ করে ফাস্টফুড খাওয়া যাবে না, কারণ এতে উচ্চমাত্রায় চর্বি থাকে। তাই মেদ কমাতে চাইলে উচ্চ ফ্যাট খাওয়া ছেড়ে দিন।

৫. ভিনেগার

বাড়তি মেদ কমাতে ভিনেগার খুব উপকারী। এটা চর্বি কাটতে সাহায্য করে। নিয়মিত ভরা পেটে ভিনেগার খাবেন এতে কোমরের অতিরিক্ত মেদ কেটে যাবে।

৬. হাঁটাহাঁটি করা

হাঁটাচলা কম করলে তা শরীরে মেদ জমতে সাহায্য করে। তাই প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট জোরে জোরে হাঁটুন। এতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালরি নষ্ট হবে। যা মেদ কমায়। তাই মেদ কমাতে হাঁটার বিকল্প নাই।

৭. পানি

আপনি কি জানেন পানি মেদ কমায়। পানি ক্যালরি বার্ন করে। তাই মেদ জমতে পারে না । পানি ছাড়া দেহের ভিতর জমে থাকা ফ্যাট মেটাবোলিজম হয় না। তাই প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি খেলে মেদ কমতে থাকে।

৮. গ্রিন টি

মেদ কমাতে গ্রিন-টি খেতেই হবে। বিশেষ করে পেটের বাড়তি মেদ কমাতে গ্রিন-টি এর জুড়ি নেই। এটা ৪০% পর্যন্ত মেদ কমাতে সক্ষম। এর ভিতর ক্যাফেইন থাকে যা মেদ কমায় । তাই প্রতিদিন অনন্ত ২ কাপ করে খাওয়া উচিত।

৯. চিনিযুক্ত খাবার বর্জন

আপনি যাই করেন না কেন। চিনি খাওয়া বন্ধ করতে না পারলে মেদ কমানোর কোন উপায় নেই।কারণ চিনি মেদ কমায় না বরং মেদ বাড়ায়। তাই আপনার খাবার রুটিন থেকে চিনি বাদ দিন।

১০. ব্যায়াম করা

মেদ কমাতে অবশ্যই করনীয় হল ব্যায়াম। প্রতিদিন সকাল বিকাল দুই বেলা ৩০ মিনিট করে এটা করা উচিত। এতে আপনার শরীরে মেদের পরিমাণ কমে যাবে। ব্যায়াম করলে সবচেয়ে বেশি ক্যালরি খরচ হইয়। আর যত ক্যালরি কমবে তত মেদ কম হবে।

মেদ কমাতে আপনি কোনো পদ্ধতি অনুসরণ করে থাকলে তা আমাদের জানাতে পারেন। আপনার সাফল্যে আমাদের পাঠকেরা অনুপ্রাণিত হবে। আপনাদের সবার সুস্থতা এবং মঙ্গল কামনা করছি। ধন্যবাদ দেহ’র সাথে থাকার জন্য।