জেনে নিন কনুইয়ে হঠাৎ টোকা খেলে বৈদ্যুতিক শক কেন লাগে

হঠাৎ করে হাঁটাচলার পথে কুনুইয়ে কিছুর হালকা টোকা লাগলে শরীরে কেমন একটা বৈদ্যুতিক শক লাগে না? মনে হয় গোটা শরীরে কেউ ইলেকট্রি শক দিয়েছে।

কেন এমন হয় বলুন তো? কোনও দিন ভেবে দেখেছেন?

জানা গিয়েছে কুনুইয়ের যেখানে ঠোকা লাগলে এই চিনচিনে ব্যাথা হয়, সেই স্থানের নাম ‘ফানি বোন’। তবে এটি কোনও হাড় নয় বরং একটি স্নায়ু। এটি হাতের প্রধান তিনটে স্নায়ুর একটি। এটি হাতের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বিস্তৃত। এই স্নায়ুর মাধ্যমে আমাদের আঙুলের ডগার অনুভূতি মস্তিষ্কে পৌঁছয়। ‘ফানি বোন’-এর বৈজ্ঞানিক নাম আলনার নার্ভ। এটার অবস্থান ত্বকের কাছাকাছি।

এই স্নায়ুর অধিকাংশ জায়গাতেই হাড়, পেশি ও চর্বি থাকে। তবে যখন এটি কনুইয়ের নিচের দিকে যায় তখন এটাকে একটি সরু পথ অতিক্রম করতে হয়। যার নাম ‘কিউবিটাল টানেল’

ওই টানেলের স্থানে স্নায়ুটির একপাশ কনুইয়ের হাড়ের সঙ্গে যুক্ত থাকে এবং অন্যপাশ আমাদের ত্বকের সঙ্গে। ফলে ওই স্থানে স্নায়ুটি সবচেয়ে বেশি সংবেদনশীল থাকে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, স্নায়ুটি যখন ওই টানেল অতিক্রম করে। তখনই সবচেয়ে বেশি সংবেদনশীল থাকে। তখন কিছুতে আঘাত লাগলে স্নায়ুটি সংকুচিত হয়ে যায়।

এই সংকোচনকে বলে ‘আলনার নার্ভ এনট্র্যাপমেন্ট’। যেহেতু আলনার নার্ভটি ত্বকের একদম কাছে অবস্থান করে। তাই এখানে আঘাত লাগলে বৈদ্যুতিক শক খাওয়ার মতো অনুভূতি হয়।