আসছে শীত, ঠোঁট ফাটার আগেই যত্ন নিন

প্রকৃতি তার রূপ বদলাচ্ছে। গরমকে বিদায় জানাতে আগমন ঘটেছে শীতের। যদিও অক্টোবর শেষ হয়ে গেলেও, এখনো গরম সেভাবে কমছে না। কিন্তু এমনটা রাজধানীতে হলেও দেশের অন্যান্য স্থানে শীত নামছে। ইতোমধ্যেই দেশের উত্তরাঞ্চল ও উত্তর-পূবাঞ্চলে ঠাণ্ডা পড়তে শুরু করেছে।

জানেন নিশ্চয়ই, শীত আসার কিছু দিন আগে থেকেই বাতাসে টান ধরা শুরু করে। আদ্রর্তার অভাবে ত্বক শুকিয়ে যায়। এসময়ে ঠোঁট বারবার শুকিয়ে ফেটে যাওয়ার প্রবণতা বাড়ে। ঠোঁটের চামড়া উঠে যাওয়া, ঠোঁট ফেটে রক্ত পড়া এবং ঠোঁটের চারপাশে শুকিয়ে যাওয়ার সমস্যাও বাড়ে।

শীতে ঠোঁটের এমন সমস্যা কম বেশি সবারই হয়ে থাকে। তাই এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রয়োজন ঠোঁটের আগাম যত্ন। হ্যাঁ, শীতে ঠোঁট ফাটার ভয় দূর করতে হলে আগে থেকেই কিছু সতর্কতা মেনে চলা জরুরি। তবে শীতে ঠোঁট ফাটার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

চলুন তবে জেনে নেয়া যাক ঠোঁট ফাটা সমস্যার সমাধানে কী করবেন-

> বেশি করে পানি পান করে শরীর আর্দ্র রাখতে হবে এ মৌসুমে।

>> ঠোঁট শুকিয়ে গিয়ে চামড়া উঠলেও ঠোঁট কামড়ানোর অভ্যাস ত্যাগ করুন।

>> ঠোঁট শুকিয়ে যাওয়ার সমস্যা এড়াতে সবসময় সঙ্গে লিপ বাম রাখুন। কয়েক ঘণ্টা অন্তর ঠোঁটে লাগান।

>> খাদ্যাভ্যাসে বদল আনতে হবে। এমন খাবার খান যাতে বেশি পরিমাণে ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে। যেমন- কমলালেবু, পাতিলেবু, গাজরের মতো ফল-সবজি।

এছাড়াও ভরসা রাখা যেতে পারেন কিছু ঘরোয়া পদ্ধতির উপর। যেমন-

ঠোঁটের শুকনো চামড়া, মৃত কোষ সরিয়ে ফেলা প্রয়োজন। সপ্তাহে অন্তত দুদিন ঠোঁটের জন্য তৈরি বিশেষ স্ক্রাব ব্যবহার করতে হবে। তবে এ স্ক্রাব আপনি বাড়িতেই বানিয়ে ফেলতে পারেন।

>> মধু, লেবুর রস এবং চিনির গুঁড়া একসঙ্গে মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিতে পারেন।

>> নারকেল তেল এবং গুঁড়ো করা ওটস দিয়েও তৈরি হবে ভালো স্ক্রাব।

>> এছাড়া প্রতিদিন রাতে ঘুমোনোর আগে ঠোঁটে মধু কিংবা ঘি লাগিয়ে রাখতে পারেন। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ঠোঁট থাকবে কোমল।