একটি মাত্র উপাদানেই দ্রুত কমবে ওজন বাড়বে আপনার হজমশক্তি

ওজন কমানো সহজ কাজ নয়। এমন কোনো মন্ত্র বা ডায়েট নেই, যা আপনাকে দ্রুত কয়েক কেজি কমাতে সাহায্য করবে। নিয়মিত ব্যায়ামের সঙ্গে শুধু স্বাস্থ্যকর খাবারই ওজন কমাতে পারে।

স্বাস্থ্যকর ওজন কমানোর জন্য পুষ্টিকর খাবার থাকা জরুরি। তবে আপনি যদি ওজন কমানোর প্রক্রিয়া আরও ত্বরান্বিত করতে চান তাহলে এক উপাদানে ভরসা রাখতে পারেন।

গিলয় একটি ওষুধি গাছ। এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক। বলা হয়, এটি ওজন কমাতেও সাহায্য করে।

টিনোস্পোরা করিফোলিয়ার মেডিসিনাল ও বেনিফিশিয়াল হেলথ অ্যাপ্লিকেশনের একটি গবেষণা অনুসারে, গিলয়ে থাকে অ্যাডিপোনেক্টিন ও লেপটিন।

এ দুটি উপাদান শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। এই উপাদানে থাকা পুষ্টি উপাদান শরীরের সব টক্সিন বের করে দেয়। ফলে দ্রুত ওজন কমে।

শুধু ওজন কমাতেই নয় ডায়াবেটিস থেকে শুরু করে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে গিলয়। জেনে নিন এর আরও উপকারিতা-

>> গিলয় শরীরের ফ্রি র‌্যাডিকেল কমায়। এটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের একটি পাওয়ার হাউজ।

এর পাশাপাশি এটি শরীরের বিভিন্ন কোষকে সুস্থ রাখে ও ব্যথা কমায়। এটি রক্ত পরিশোধন করে। এমনকি লিভার ও মূত্রনালীর সংক্রমণের চিকিৎসায়ও সাহায্য করে।

>> রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে বিস্ময়কর কাজ করে গিলয়। ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিরা রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রতিদিন সকালে গিলয়ের রস খেতে পারেন।

>> গিলয় হজমের উন্নতি ঘটায়। আইবিএস রোগের চিকিৎসায় খুবই উপকারী এই উপাদান। গিলয় ও আমলার রস হজম ও অন্ত্রের স্বাস্থ্যের উন্নতি করে।

>> স্ট্রেসের মাত্রাও কমে গিলয়ের গুণে। নিয়মিত গিলয়ের রস খেলে মানসিক স্বাস্থ্য, স্মৃতিশক্তির উন্নতি ও ঘনত্ব বাড়ে।

ওজন কমাতে কীভাবে গিলয় খাবেন?

অ্যালোভেরার মতো গিলয়ও শরীরের জন্য অনেক উপকারী। এটি হজমে সহায়তা করে ও দ্রুত ওজন কমায়।

ওজন কমাতে দৈনিক আধা গ্রাম গিলয়ের রসের সঙ্গে সামান্য মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। মিশ্রণটি অবশ্যই সকালে খালি পেটে পান করুন।