মেধাবীরা দেরিতে ঘুমায়, গালি দেয় বেশি এমনই বলছে গবেষণা

আপনি কি অন্যদের তুলনায় একটু বেশিই গালি দেন? এজন্য নিশ্চয়ই বেশ দুর্নামও রয়েছে আপনার। কিন্তু গবেষকরা বলছেন ভিন্ন কথাং তাদের দাবী, এই ধরনের মানুষ আসলে অন্যদের থেকে বেশি বুদ্ধিমান ও সৎ হন।

গবেষণা বলছে, আইকিউ বা বুদ্ধিমত্তা বেশি এমন মানুষ রাতে বেশি সক্রিয় থাকেন। ফলে গভীর রাত পর্যন্ত জেগে থাকেন তাঁরা।গবেষকদের মতে, বুদ্ধিমান ও মেধাবীরা সাধারণত কিছুটা অগোছালো হন। নিজের মত বা ভাবনাকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে অশালীন শব্দ ব্যবহারেও পিছ পা হন না তাঁরা। গবেষণা বলছে, এই ধরণের শব্দের প্রয়োগে তাঁদের ভাষার প্রবাহ ও শব্দকোষের দখল প্রতিফলিত হয়।

গবেষণা বলছে, আইকিউ বা বুদ্ধিমত্তা বেশি এমন মানুষ রাতে বেশি সক্রিয় থাকেন। ফলে গভীর রাত পর্যন্ত জেগে থাকেন তাঁরা। যাঁদের আইকিউ ৭৫ বা তার কম, তারা রাত ১১.৪১ মিনিটের মধ্যে ঘুমিয়ে রাখেন। যাঁদের আইকিউ ১২৩ বা তার বেশি তাঁরা রাত ১২.৩০ মিনিটের পরেও জেগে থাকেন।

গবেষণাপত্রে এদের স্মার্ট বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এই ধরণের মানুষ পরিস্থিতি বদলের সঙ্গে সঙ্গে নিজের দক্ষতা বাড়াতে পারেন। সমস্যা সমাধানে এদের বিশেষ উত্সাহ দেখা যায়।

এই বিষয়ে অ্যালবার্ট আইনস্টাইন বলেছিলেন, জ্ঞান বুদ্ধিমত্তার নির্ণায়ক নয়, বুদ্ধিমত্তা বোঝা যায় কল্পনাশক্তি দিয়ে। গবেষকরা বলছেন, প্রকৃত বুদ্ধিমান মানুষ সব কিছু সকারাত্মক ভাবে দেখেন।

যে কোনও পরিস্থিতি থেকে সেরাটা বার করার চেষ্টা করেন তাঁরা। এমন ধরণের মানুষ নিজেদের ভুল থেকে সব থেকে বেশি শেখেন।

গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, এই ধরণের মানুষের নৈতিকতার মান খুব উঁচু হয়।