শিখে রাখুন বাচ্চাদের মাথায় উকুনের জন্য ১৫টি সেরা ঘরোয়া প্রতিকার

নজর না দেওয়া হলে, বাচ্চাদের মাথায় উকুনের উপদ্রব হতে পারে। অনবরত চুলকানি ও জ্বালার সাথে, আপনার বাচ্চা বাড়িতে বা স্কুলে শান্তিতে দৈনন্দিন কাজকর্ম করতে সমস্যায় পড়ে। বেশিরভাগ সময়টা বাড়ির বাইরে কাটালে এবং অন্য বাচ্চাদের সঙ্গে থাকলে বাচ্চাদের উকুন হতে পারে, যা চুলকানির সমস্যা তৈরি করে। আপনি যদি আপনার বাচ্চার স্কাল্পে নিকী দেখতে পান, এটাই সবচেয়ে স্পষ্ট লক্ষণ। মাথার উকুনের জন্য প্রাকৃতিক প্রতিকার সম্পর্কে আপনার যা জানা দরকার তা এখানে রয়েছে।

শিশু মাথার উকুনের চিকিত্সার জন্য বাবা-মা কেন ঘরোয়া প্রতিকার পছন্দ করেন?

যদিও আপনি ডাক্তারের কাছে যেতে পারেন এবং ওটিসি ওষুধগুলির জন্য প্রেসক্রিপশন পেতে পারেন, তবুও উকুনের চিকিত্সা করার জন্য সাধারণত এগুলির পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলির কারণে অনেক বাবা-মা এড়িয়ে চলেন। মাথার উকুনের চিকিত্সার ঘরোয়া প্রতিকার মাথার স্কাল্পের চিকিত্সা এবং স্বাস্থ্য বজায় রাখার প্রাকৃতিক উপায় রয়েছে। এছাড়াও, যদি আপনার সন্তানের রাগওয়েড বা ক্রাইস্যান্থেম অ্যালার্জির সমস্যা থাকে তবে, উকুন নির্মূল করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ওটিসি ওষুধ এবং প্রেসক্রিপশনের ওষুধগুলি এড়াতে হবে।

মাথায় উকুনের জন্য ১৫টি কার্যকর ঘরোয়া প্রতিকার

এখানে শিশু এবং বাচ্চাদের মধ্যে উকুনের জন্য ১৫টি কার্যকর ঘরোয়া প্রতিকার রয়েছে। এগুলি চেষ্টা করে দেখুন, এবং আমরা নিশ্চিত যে, আপনার সন্তান খুশি হবে।

১) ভিনিগার

দ্রবীভূত বা ডিস্টিল্ড ভিনিগার ব্যবহার করুন এবং ধীরে ধীরে আপনার সন্তানের চুলে প্রয়োগ করুন। কিছুক্ষণের জন্য রেখে দিন এবং সাধারণ জল দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। আপনি এই চিকিত্সার জন্য আপেল সাইডার ভিনেগার ব্যবহার করতে পারেন। চুল ধোয়ার পর মৃত উকুন ও নিকীগুলি বের করে দেওয়ার জন্য আমরা চুল আঁচড়ানোর সময় নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারি।

২) অলিভ তেল

আপনার সন্তানের স্কাল্পে আপেল অলিভ তেল লাগান, যতক্ষণ না এটি পরিপৃক্ত বা সম্পৃক্ত লাগে। অলিভ তেল ও জলের উকুনের শ্বাস নিতে কোনও জায়গা রাখে না এবং তারা মারা যায়। ১৫-২০ মিনিটের পরে, চিরুনি দিয়ে মৃত উকুনগুলি বের করে দিন এবং অতিরিক্ত তেল এবং নিকী বের করানোর জন্য শ্যাম্পু প্রয়োগ করুন। যতদিন পর্যন্ত আপনি আরও বেশি উকুন বা লাল অংশ দেখতে পাবেন, ততদিন এই প্রক্রিয়াটি কয়েক বার পুনরাবৃত্তি করতে হবে এবং প্রতিটি সেশনের পরে তাদের জামাকাপড়গুলি সাবধানে ভালো করে ধুয়ে নিন।

৩) টি ট্রি তেল

টি ট্রি বা চা গাছের তেল শিশুদের মাথার উকুন এবং ডিমের জন্য একটি সেরা ঘরোয়া প্রতিকার। শুধু একটি স্প্রে বোতলে চা গাছের তেল ঢেলে তা জলের সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। আপনার সন্তানের স্কাল্পের উপর এটি স্প্রে করুন এবং কিছুক্ষণের জন্য একটি তোয়ালে দিয়ে মাথা ঢেকে দিন। তোয়ালে সরিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। সেরা ফলাফলের জন্য সপ্তাহে দুবার পুনরাবৃত্তি করুন। আপনি আপনার বাচ্চাদের শ্যাম্পুতে কিছু চা গাছের তেল যোগ করতে পারেন অথবা অলিভ তেলের সঙ্গে মিশিয়ে নিন, নিকীগুলিকে আঁচড়ে ফেলে দেওয়ার জন্য।

৪) রসুন

উকুন রসুন ঘৃণা করে এবং আপনি এগুলি দিয়ে এদের মারতে পারেন। সহজভাবে, ৮ বা ১০টি রসুনের কোয়া লেবুর রসের সঙ্গে মিশিয়ে পিষে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন, এবং আপনার সন্তানের স্কাল্পে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। এটি ৩০ মিনিটের জন্য রাখুন এবং হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে শুকিয়ে নিন।

৫) পেট্রোলিয়াম জেলি

পেট্রোলিয়াম জেলি উকুনের চলাফেরা বন্ধ করে দেয় এবং একটি বাধা হিসাবে কাজ করে। আপনার শিশুদের স্কাল্পের উপর পেট্রোলিয়াম জেলির পুরু স্তর লাগান এবং রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এটি একটি তোয়ালে বা সাওয়ার ক্যাপ দিয়ে ঢেকে দিন। যখন তারা সকালে ঘুম থেকে উঠবে, বেবি অয়েল এবং একটি উকুনের চিরুনি ব্যবহার করে নিকী এবং মৃত উকুন অপসারণ করুন।

৬) হেয়ার ড্রায়ার

আপনার সন্তানের স্ক্যাল্প থেকে উকুন বেছে নেওয়ার একটি দ্রুত এবং নিশ্চিত উপায় হল, হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করা। এই কাজটি নিশ্চিত করে বাড়ির বাইরের করুন, উকুনগুলিকে ছড়ানো থেকে আটকাতে এবং অল্প বয়স্ক বাচ্চাদের জন্য এটি এড়ানো উচিত, কারণ গরম বাতাস তাদের স্কাল্পের জন্য ভাল নয়।

৭) পেঁয়াজের রস

কে বলে পেঁয়াজ উপকারী নয়? বাড়িতে কিছু পেঁয়াজ রস তৈরি করুন এবং প্রায় ৩ থেকে ৪ ঘন্টা ধরে আপনার শিশুর স্কাল্পে রেখে দিন। মৃত উকুন এবং নিকীগুলিকে চিরুনি দিয়ে নিশ্চিহ্ন করুন এবং শ্যাম্পু দিয়ে ভালোভাবে চুল ধুয়ে ফেলুন। সেরা ফলাফলের জন্য প্রতি ৩-৪ দিন পর পর এর পুনরাবৃত্তি করুন।

৮) আপেল মাখা

যদিও খুব অপরিষ্কার কিন্তু অত্যন্ত কার্যকরী, আপনি আপনার বাচ্চাদের স্কাল্পের উপর আপেল মাখা প্রয়োগ করতে পারেন এবং উকুন ও নিকী ধ্বংস করার জন্য কয়েক ঘন্টার জন্য রেখে দিন। সম্পূর্ণ চুল এতি দিয়ে সম্পূর্ণরূপে ঢেকে রাখা এবং এক ঘন্টা পরে ধুয়ে ফেলাই আসল কৌশল।

৯) মেয়োনেজ

পরের বার আপনার সন্তানের উকুনের চিকিত্সার জন্য বাড়ির তৈরি মেয়োনেজ কিছুটা রেখে দিন! এটা সহজে পাওয়া যায় এবং উকুন মেরে দেয়। আপনার সন্তানের স্কাল্পের উপর ভালভাবে মেয়োনিজ প্রয়োগ করুন এবং রাতে টুপি দিয়ে এটি ঢেকে রেখে দিন। পরের দিন সকালে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলা এবং মৃত উকুন বের করে দিন।

১০) নারকেল তেল

কিছু নারকেল তেল নিন এবং আপনার সন্তানের স্কাল্পের উপর ভালো করে প্রয়োগ করুন। দুই ঘন্টার জন্য সাওয়ার ক্যাপ দিয়ে এটি ঢেকে রাখুন এবং মৃত উকুন ও ডিমগুলি সরানোর জন্য পরে একটি উকুনের চিরুনি ব্যবহার করুন। শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন এবং চুল শুকিয়ে গেলে আবার এটি প্রয়োগ করুন। শুতে যাওয়ার আগে লাগান এবং সারারাত থাকতে দিন। আবার আঁচড়ে নিন, ধুয়ে শুকিয়ে নিন এবং সপ্তাহে দুইবার এর পুনরাবৃত্তি করুন।

কিছু নারকেল তেল নিন এবং আপনার সন্তানের স্কাল্পের উপর ভালো করে প্রয়োগ করুন

১১) নিম তেল

আপনার সন্তানের নিয়মিত শ্যাম্পুতে নিম তেলের কয়েকটি ড্রপ যোগ করুন এবং স্নানের সময় ভালোভাবে চুল ধুয়ে নিন। মৃত উকুন মুছে ফেলার জন্য চুলের বিভিন্ন অংশে সাবধানতার সাথে এক উকুনের চিরুনি ব্যবহার করুন। নিম তেল-ইনফ্লুয়েড শ্যাম্পু স্কাল্পে উকুন সংক্রমণ অপসারণ করতে নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে।

১২) বেনজাইল অ্যালকোহল

ছয় মাসের বেশি বয়সী শিশুদের জন্য, আপনি তাদের স্কাল্পে বেনজাইল অ্যালকোহল প্রয়োগ করতে পারেন এবং মৃত উকুন মারা ও অপসারণের জন্য এটি একটি বেসিনে সাধারণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে পারেন। স্কাল্পের উপর থেকে ডিম থেকে বেরিয়ে আসা অবশিষ্ট উকুন মারতে সপ্তাহের পর এইটিকে পুনরাবৃত্তি করুন। ধোয়ার পরে একটি উকুনের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে নিন।

১৩) ইউক্যালিপটাস তেল

যদি উকুন রাসায়নিক চিকিৎসাকে সহ্য করে ফেলে, তাহলে অলিভ অয়েলের সাথে ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা ইউক্যালিপটাস তেল মিশিয়ে স্কাল্পে লাগান। সাওয়ার ক্যাপ পড়িয়ে সারারাত রেখে দিন এবং সকালে মৃত উকুন ফেলতে চিরুনি ব্যবহার করুন। আঁচড়ানোর পর চুল ধুয়ে শুকিয়ে নিতে ভুলবেন না।

১৪) লবন এবং ভিনিগারের মিশ্রণ

লবণ এবং ভিনিগারের মিশ্রণ দিয়ে আপনি আপনার সন্তানের স্কাল্পকে উকুনমুক্ত করতে পারেন। লবণ একটি অ্যান্টিসেপটিক, ভিনেগার চুলের উকুনগুলিকে স্কাল্পের উপর ঘুরে বেড়ায় বাধা দেয়। একটি স্প্রে বোতল মধ্যে মেশান এবং আপনার সন্তানের মাথা উকুনমুক্ত করতে চুল এবং স্কাল্পে এই স্প্রে ব্যবহার করুন। প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে এরপর ধুয়ে নিন।

১৫) বেকিং সোডা

১ অংশ বেকিং সোডা এবং ৩ অংশ চুলের কন্ডিশনারের মিশ্রণ উকুন মারতে পারে, কারণ এটি তাদের শ্বাস বন্ধ করে দেয়। চুলে কয়েকটি বিভাগ করে মিশ্রণ প্রয়োগ করুন এবং চুল আঁচড়ে নিন। চিরুনি মোছার জন্য নরম টিস্যু ব্যবহার করুন এবং নিকী, উকুনের ছানা, এবং বড় উকুন মুছে ফেলার জন্য একটি নরম টিস্যু ব্যবহার করুন। একবার শেষ হয়ে গেলে উকুন-বিরোধী শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং সব উকুন অপসারণের জন্য আগামী কয়েক দিনের মধ্যে এটি পুনরাবৃত্তি করতে ভুলবেন না।

এই সহজ কিন্তু কার্যকরী ঘরোয়া প্রতিকারগুলি ব্যবহার করে দেখুন, এবং আপনি শীঘ্রই আপনার দেখবেন যে, আপনার সন্তান উকুনের সংক্রামক যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবে। সেরা ফলাফলের জন্য সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার এই প্রতিকারগুলি ব্যবহার করতে ভুলবেন না। যাইহোক, এর মধ্যে কয়েকটি প্রতিদিনও ব্যবহার করা যেতে পারে।