সারা বছর চুল ফাটা বা মাথায় খুশকি হওয়া, হতে পারে মারাত্মক রোগের উপসর্গ

অতিরিক্ত চুল পড়া বা খুশকির সমস্যাকে সাধারণ সমস্যা ভেড়ে উড়িয়ে দিচ্ছেন। এমনটা কিন্তু নাও হতে পারে। বিশেষজ্ঞেরা বলছেন- চুলের আগা ফাটা, খুশকির সমস্যা, চুল পড়ে যাওয়া এগুলো হতে পারে কোনও রোগের উপসর্গও।

ধরুন আপনার চুল বেশ কম বয়সেই পেকে যাচ্ছে, আপনি ভাবছেন এর মধ্যে জিনঘটিত কোনও ব্যাপার আছে। কিন্তু এটাই কোনও রোগের জানান দিচ্ছে না তো?

কী ধরনের রোগ হতে পারে—

মাথায় খুশকির সমস্যা খুবই সাধারণ ব্যাপার। কিন্তু সেটাই যদি বেশি পরিমাণে হয়, তা হলে কিন্তু সতর্ক হতে হবে। অতিরিক্ত খুশকির কারণ মাথার ত্বকে ছত্রাক হওয়া কিংবা এগজিমা, যা অত্যন্ত ক্ষতিকর।

আবার কারও কারও মাথায় হলুদ খুশকি হয়ে থাকে। এর কারণ মূলত মাথার ত্বকের এক ধরনের অসুখ। তবে হরমোন বা স্নায়ুঘটিত রোগের উপসর্গও হতে পারে হলুদ খুশকি।

প্রতিদিন যে চুল পড়া স্বাভাবিক, তার বাইরে অতিরিক্ত চুল পড়লেও সতর্ক হওয়া দরকার। এগুলো পেটের সমস্যা, অবসাদ ও থাইরয়েডের মতো রোগের উপসর্গও হতে পারে।

আপনার শরীরে পুষ্টির অভাবের সংকেতও দেবে চুল। চুলের আগা ফেটে যাওয়া বা চুল শুকিয়ে যাওয়ার কারণ হতেই পারে চুলে পর্যাপ্ত পুষ্টির অভাব ও ঠিক মতো খাওয়া-দাওয়া না করা।

যা করণীয়—

১. চুলে এই ধরনের সমস্যা হলে সতর্ক হন।

২. প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

৩. চুলে রং লাগাতে হলে অ্যামোনিয়ামুক্ত রং মাখুন।

৪. চুল ও মাথার ত্বকের স্বাস্থ্য যাতে ভাল থাকে, তার জন্য প্রচুর পরিমাণ পানি ও পুষ্টিযুক্ত খাবার খান।

৫. প্রতিদিন সময় মেপে ঠিক মতো ঘুমোন।