হরমোনের সমস্যার কারণে পেটের মেদ কমে না, জেনে নিন এর প্রধান ৩টি লক্ষণ

মেদ ঝরাবেন বলে নিয়ম মেনে ডায়েট করছেন। রোজ শরীরচর্চাতেও খামতি নেই। সারা শরীর থেকে অনেকটাই মেদ ঝরে গিয়েছে, তাও পেটের মেদ কোনও ভাবেই কমছে না। কোনও রকম ঘরোয়া টোটকাও কাজে লাগছে না।

সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে এর কারণ হতে পারে হরমোনের তারতম্য। খিদে, মানসিক চাপ, বিপাক কিংবা যৌনতা এই সবই নিয়ন্ত্রণ করে হরমোন। শরীরে হরমোনের সমতা ঠিক না থাকলে পেটে মেদ জমতে বাধ্য।

কেন এরকম হয়?

১) ভারী খাওয়াদাওয়ার পরেও খিদে পাচ্ছে? তা হলে হরমোনের সমস্যার বিষয়টি মাথায় রাখুন। এ ক্ষেত্রে ধরে নিতে হবে, যৌন ক্ষমতার কারণ যে হরমোনগুলি, সেগুলি অন্যান্য হরমোনগুলিকে প্রভাবিত করছে। যেমন শরীরে ইস্ট্রোজেনের পরিমাণ কম থাকলে ভারী খাবার খাওয়ার পরেও খিদে পায়।

২) আপনি কি খুব মানসিক উদ্বেগে থাকেন? এর ফলে অ্যাড্রিনাল গ্রন্থি কর্টিসল হরমোন নিঃসরণ করে। অতিরিক্ত মানসিক চাপ থাকলেও এটা হতে পারে। তবে এমন সময়ে দেহের প্রয়োজনের চেয়ে অনেক বেশি এই হরমোন নিঃসরণ ঘটে। কর্টিসল হরমোনের পরিমাণ বেড়ে গেলে হৃদ্‌রোগ, উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবিটিসের আশঙ্কা তৈরি হয়। এই অতিরিক্ত কর্টিসলের কারণেই পেটে মেদ জমে।

৩) প্রয়োজনের চেয়ে অতিরিক্ত শরীরচর্চা করার অভ্যেস রয়েছে? এর কারণেও কিন্তু শরীরে ইস্ট্রোজেন হরমোনের পরিমাণ কমে যেতে পারে। ঠিক মতো খাওয়াদাওয়া না করলেও এই রকম সমস্যা হয়। তবে শরীরে ইস্ট্রোজেনের পরিমাণ কমে গেলে ওজন বাড়ে। সেই সঙ্গে পেটে মেদও জমে। এই ধরনের সমস্যা এড়াতে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসের পরামর্শ নিন।