অল্প বয়সেই পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে চলে যেতে হয়েছে যেসব বলিউড তারকাদের, দেখুন তালিকা

জীবন কত সংক্ষিপ্ত। একটা একটা করে বার্থডে সেলিব্রেশন করতে করতে কখন মৃত্যুর দিন চলে আসে বোঝায় যায় না। এক্ষেত্রে ধনী, দরিদ্র, সাধারণ, তারকা এসব কিছুই খাটে। মৃত্যু এলে চিরতরে চলে যেতে হয় সবাইকেই। কিন্তু কিছু কিছু মৃত্যু আমরা মেনে নিতে পারিনা।

শুধু যে তারকা এই কারণে নয়। অতি অল্প বয়সে চলে যাওয়াটা আসলে কারো ক্ষেত্রেই মেনে নেওয়া যায় না। তার উপরে যদি অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। এমনই কিছু বলিউড তারকাদের তালিকা নিয়ে আজ হাজির হয়েছি, যারা খুব অল্প বয়সেই মারা গেছেন।

সিদ্ধার্থ শুক্লা : গতকাল অর্থাৎ ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সোশ্যাল মিডিয়া ছেয়ে গেছিল তার মৃত্যু সংবাদ। মাত্র ৪০ বছর বয়সেই বিদায় নিলেন এই অভিনেতা। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বলেই খবর। বালিকা বধূর মতো জনপ্রিয় হিন্দি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিনি। বিগ বস ১৩-এর উইনার হয়েছিলেন। এছাড়া তাঁর ঝুলিতে রয়েছে আরও অনেক পুরস্কার। তাঁর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ বলিউড।

সুশান্ত সিং রাজপুত : গত বছর ১৪ জুন বলিউড হারিয়েছিল এই প্রতিভাবান অভিনেতাকে। মাত্র ৩৪ বছর বয়সে মৃত্যু হয় সুশান্তের। মুম্বাইয়ের বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় অভিনেতার ঝুলন্ত দেহ। ২০০৯ সালে পবিত্র রিস্তা ধারাবাহিক দিয়ে অভিনয় জীবন শুরু করেন। পরে টেলিভিশন থেকে বড়ো পর্দায় পা রেখেছিলেন। মূলত ‘ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’, ছবিটিতে ধোনির চরিত্রে অভিনয় করে চর্চায় এসেছিলেন তিনি। এছাড়া ‘রাবতা’, ‘কেদারনাথ’, ‘পিকে’, ‘শুদ্ধ দেশি রোমান্স’, ‘ছিঁচোড়ে’র মতো হিট হিট সিনেমা রয়েছে তার ঝুলিতে। তার মৃত্যুর কারণ আজও রহস্য এবং তদন্ত এখনও চলছে।

দিব্যা ভারতী : খুব বেশিদিন বলিউডে রাজ করতে পারেননি এই অভিনেত্রী। কিন্তু যে কয়েকটি ছবিতে কাজ করেছেন, তা দিয়েই দখল করে বসে আছেন দর্শকদের মন। মাত্র ২৯ বছর বয়সে রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয় দিব্যার। ১৯৯৩ সালের ৭ এপ্রিল নিজের ভারসোভার ফ্ল্যাট থেকে পড়ে গিয়ে মারা যান তিনি। এই অভিনেত্রীর মৃত্যু আজও রহস্য।

পারভিন ববি : ১৯৮০ দশকের বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন পারভিন ববি। ব্যক্তিগত জীবনের অশান্তিই তাঁর জীবনের সমাপ্তির কারণ। সম্পর্কে ভাঙন, অত্যধিক মদ্যপানের কারণেই মৃত্যু হয় তাঁর। পারভিনের কবে মৃত্যু হয় তা কেউ জানে না। তাঁর ফ্ল্যাটের দরজার সামনে খবরের কাগজ আর দুধের প্যাকেট জমছিল দিনের পর দিন। শেষে প্রতিবেশীরাই পুলিশে খবর দেন। তারপর ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে উদ্ধার করা হয় মৃত পারভিনকে।

সিল্ক স্মিতা : মুম্বাইয়ে নিজের আবাসনে আত্মহত্যা করেন এই অভিনেত্রী। প্রথমে তিনি আইটেম গার্ল হিসেবেই কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। তারপর অনেক স্ট্রাগল করে অভিনেত্রী হয়ে ওঠেন। তাঁর মৃত্যুর কারণ আজও এক রহস্য।

গুরু দত্ত : এই অভিনেতা মাত্র ৩৯ বয়সে মারা গিয়েছিলেন। জানা যায়, মদের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে খাওয়ার কারণেই নাকি মৃত্যু হয় এই অভিনেতার।

জিয়া খান (Jiya Khan) : বলিউডে উঠতি মডেল ও নায়িকা ছিলেন তিনি। কিন্তু সেইভাবে সফল কেরিয়ার গড়ার আগেই মৃত্যু হলো। ২০১৩ সালের ৩ জুন তাঁর নিজের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করা হয় ঝুলন্ত দেহ। তবে তিনি একটি সুইসাইড নোট লিখে গেছিলেন। সেখান থেকেই জানা যায় অভিনেতা সুরজ পাঞ্চালির সঙ্গে জিয়ার সম্পর্ক ছিল। তাঁর অপমানের কথাও জানা যায় সেই চিঠি থেকে। সেই চিঠির ভিত্তিতেই পুলিশ অভিনেতা সুরজ পাঞ্চালিকে গ্রেফতার করেন। কিন্তু তার কিছুদিনের মধ্যেই তার জামিন হয়ে যায়।

ইন্দ্র কুমার (Inder Kumar) : বলিউডে বেশ জনপ্রিয় অভিনেতা ছিলেন তিনি। তবে তাঁর মৃত্যুতে কোনো রহস্য নেই। ২০১৭ সালে নিজের বাড়িতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান এই অভিনেতা