গরম চা খেতে গিয়ে জিভ পুড়ে গেল আরাম পাবার ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

বাড়ি বসে কাজ করতে করতে চায়ে চুমুক দেবেন ভেবে চা বানিয়ে আনলেন। এমন সময় কোনও জরুরি ফোন এল। আর আপনি কথা বলতে বলতে বেমালুম ওই গরম চা খেয়ে ফেললেন। স্বাভাবিক ভাবেই জিভ পুড়ে গেল।

বেশি গরম চা খেয়ে ফেললে জিভে জ্বালাও করতে পারে। জিভ পুড়ে গেলে সবচেয়ে বেশি সমস্যা হয়, কোনও খাবারেরই তেমন স্বাদ পাওয়া যায় না। অনেক সময় মুখের ভিতরটা এই কারণে শুকিয়ে যেতেও থাকে। তবে চটজলদি কয়েকটা ঘরোয়া উপায়েই মিলতে পারে সমাধান।

গুঁড়ো দুধ ও চিনি

বাড়িতে গুঁড়ো দুধ অনেক সময়েই থাকে। এই জিনিসটাই জিভের জ্বালাভাব কমাতে সাহায্য করবে। জিভ পুড়ে গেলে একটু গুঁড়ো দুধ আর চিনি জিভের পোড়া অংশে লাগিয়ে রেখে দিন। জ্বালাভাব কমবে দ্রুত।

বরফকুচি

ফ্রিজে বরফ তো থাকেই। বরফের টুকরো একটু ভেঙে নিয়ে ছোট ছোট বরফকুচি জিভের পোড়া অংশে আলতো করে ছড়িয়ে দিন। কোনও কারণে বরফ না পেলে ঠান্ডা জল দিয়ে কুলকুচি করলেও একই উপকার পাবেন।

দই

ঘরে অনেকেই টকদই পাতেন। টকদই দিয়েই জিভের জ্বালাভাব কমাতে পারেন। জিভের পোড়া জায়গায় আলতো করে টকদই লেপে দিন। জিভ জ্বালা থেকে মিলবে আরাম।

মধু

যে কোনও পোড়া জায়গায় প্রদাহ কমাতে মধু ব্যবহার করা হয়। জিভ পুড়ে গেলেও লাগাতে পারেন মধু। মধুতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটিরিয়াল উপাদান, যা সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচায়। মধু যেহেতু একটু ঠান্ডা, তাই তা লাগালে জিভের জ্বালাভাব কমবে।