নতুন সংসারে পা দিতেই দুই সন্তানের মা চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি

চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে কয়েক মাস ধরেই অনেক গুঞ্জন চলছিল। মাহির নানা ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্টকে ঘিরেই ছড়িয়েছে সেসব গুঞ্জন। অবশেষে সেই গুঞ্জন শেষ হয়েছে ১৩ সেপ্টেম্বর মাহির দেওয়া ফেসবুক পোস্টকে ঘিরে। দ্বিতীয় বিয়ের ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। পাত্র মাহির দীর্ঘদিনের ‘বন্ধু’ রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান সরকার রাকিব।

এটি মাহি ও কামরুজ্জামান সরকার রাকিব দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। কামরুজ্জামান সরকারের প্রথম সংসারে দুটি সন্তান রয়েছে। যদিও মাহি জানিয়েছেন, স্বামীর আগের সংসারের সন্তানদের সঙ্গে এখনো দেখা হয়নি তার।

এর আগে, ২০১৬ সালের ২৫ মে জমকালো আয়োজনে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে প্রথম বিয়ে করেছিলেন মাহিয়া মাহি। চলতি বছরের মে মাসে মাহি প্রথম স্বামী অপুর সাথে ছাড়াছাড়ি হওয়ার বিষয়টি জানান। এরপর গুঞ্জন ওঠে কামরুজ্জামান সরকার রাকিব নামের এক রাজনীতিক-ব্যবসায়ীকে বিয়ে করছেন মাহি।

এর আগে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ এর এই তারকা লিখেছিলেন, আগামী ১৩ তারিখে ভক্ত ও দর্শককে সারপ্রাইজ দেবেন। এ ঘোষণার পরই রটে যায়, মাহি বিয়ে করেছেন। যদিও তিনি বিয়ের বিষয়ে মুখ খোলেননি।

তিনি বলেন, ‘সারপ্রাইজ তো অন্য কিছুও হতে পারে। বিয়েই যে হবে সে রকম তো কারণ দেখছি না।’ মাহি কোনো কারণ না দেখলেও, কারণ তো অবশ্যই আছে। আর সেই কারণ মাহির ফেসবুকে অন্য পোস্টগুলো। মাহি তার ফেসবুকে লেখেন, ‘ওয়েল, আই ক্যান ফিল ইউ ইন সংস, মুভিজ অ্যান্ড এভরিহয়ার, আলহামদুলিল্লাহ (ওয়েল, গান, সিনেমা, সর্বত্রই আমি তোমাকে অনুভব করতে পারি, আলহামদুলিল্লাহ)।’

সেদিন মেহেদিতে রাঙানো ছিল মাহির হাত। আর পরনে ছিল একটি কাতান শাড়ি। শাড়ি পরা একটি ছবিতে তার পাশে ছিল গাজীপুরের রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান সরকার রাকিব। মূলত এই পোশাকই উসকে দিচ্ছে দুজনের বিয়ের গুঞ্জনটি। গত জুন মাসে গাজীপুরের স্থানীয় রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত এবং রাকিব সরকারের কাছের একাধিক সূত্র মাহির সঙ্গে তার সম্পর্ক ও বিয়ের বিষয়ে তথ্য ছড়ায়। ওই সময় পুরো গাজীপুরে এ বিয়ে নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মাহিকে রাকিবের গাড়ি উপহার দেওয়া এবং দুজন মিলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ঘুরতে যাওয়ার কথাও শোনা গিয়েছিল সে সময়।

মাহির সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে জানতে রাকিবের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমরা বন্ধু। এই জন্যই মাঝেমধ্যে ঘুরি। এখন বন্ধুর সঙ্গে কি ঘুরতেও পারব না?’

এক সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের একটি রিসোর্টে গোপনে বিয়ে সম্পন্ন করেছেন মাহি। সেখানে দুই পরিবারের কোনো সদস্য উপস্থিত ছিলেন না বলেও জানা গেছে। ফেসবুকে মাহির আরেকটি পোস্ট নিয়ে বেশ আলোচনা হয়। সেখানে তিনি লেখেন, ‘আমি ১২ বছরের সম্পর্ক ভেঙে যেতে দেখেছি, আবার ১২ দিনের সম্পর্ক আজীবন টিকে যেতেও দেখেছি।’ পরে একাধিক লেখায় মাহি প্রকাশ করেন, তিনি কাউকে মিস করেন। সাবেক স্বামী মাহমুদ পারভেজ অপুকে মিস করছেন কিনা- তা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন।