দাম্পত্য জীবনে অর্থনৈতিক সমস্যা দেখা দিলে যা যা করতে হবে

দাম্পত্য জীবনে নানা কারণে কলহ হতে পারে। তবে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়ে প্রায় সব দম্পতির মধ্যেই কলহের সৃষ্টি হয়, তা হলো টাকা-পয়সা। অনেক নারীই প্রেমের সম্পর্কে থাকাকালীন ভেবে থাকেন তার সঙ্গী হয়তো বিয়ের পরে তাকে রানির মতো রাখবেন!

আদতে সংসার জীবনে সব দায়িত্বের ভিড়ে অনেক সময় দম্পতিরা নিজেদের শখ পূরণে ব্যর্থ হন। এর মূলে থাকে অর্থনৈতিক সমস্যা। আয় বুঝে ব্যয় করার কারণে মাস শেষে অনেকের হাতেই পর্যাপ্ত টাকা থাকে। সেক্ষেত্রে দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হতে পারে টাকা-পয়সা নিয়ে। বিশেষ করে সঙ্গীর শখ পূরণে ব্যর্থ হলে এ কলহ চূড়ান্ত পর্যায়ে রুপ নেয়।

ঝামেলা এমন পর্যায়েও যেতে পারে, যা থেকে সম্পর্ক ভাঙনের মুখে পড়তে পারে। আসলে সম্পর্কে সুখী থাকতে গেলে ভালোবাসার পাশাপাশি অর্থেরও প্রয়োজন। আর প্রথম থেকেই যদি টাকা-পয়সা নিয়ে সমস্যা থাকে; তাহলে পরবর্তীতে জটিলতা আরও বাড়তে পারে। তাই এ সমস্যা কাটাতে কৌশলী হতে হবে। জেনে নিন টাকা-পয়সা নিয়ে নিত্যদিন সংসারে অশান্তি হলে যা করবেন-

>> সম্পর্কে জড়ানোর আগে অবশ্যই সঙ্গীর আর্থিক নিরাপত্তা দেখুন। এজন্য নিজেকেও যোগ্য করে গড়ে তুলুন। ভালো থাকতে গেলে সঙ্গীকে যেমন প্রতিষ্ঠিত হতে হবে; ঠিক আপনাকেও হতে হবে। কারণ একজনের উপার্জন দিয়ে সংসারের সব চাহিদা মেটানো সম্ভব নয়। তাই সংসারে দু’জনের অবদানই প্রযোজ্য।

>> মানুষকে অতিরিক্ত কিছু দেখাবেন না। আপনার কাছে যতটুকু আছে; সেটুকু নিয়েই সুখী থাকুন। অনেকেই মানুষের মাঝে নিজের ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠা করতে নিজেকে অনেক ধনী বলে জাহির করেন।

যা ভুল পদক্ষেপ। আপনার যদি ৫০০ টাকা খরচ করার সামর্থ্য থাকে; তাহলে তাই করুন। সম্পর্কের সময় অনেকেই নিজেকে ধনী দেখানোর চেষ্টা করেন! তবে বিয়ের পর যখন সঙ্গী তার আসল রূপ দেখেন; তখনই অশান্তি তৈরি হয়।

>> অনেকেই আছেন, যারা সঙ্গীর টাকা দেখে প্রেম করেন! নারী বা পুরুষ উভয়ের মধ্যেই এমন লোভ থাকতে পারে! মনে রাখবেন, এমন প্রেম বেশিদিন স্থায়ী হয় না। কিছুদিন ভালো কাটলেও ভবিষ্যতে এমন সম্পর্ক টেকানো মুশকিল।

>> সংসার গড়ার আগে সঙ্গীর সঙ্গে অর্থনৈতিক বিষয় নিয়ে পরিকল্পনা করুন। কারও দিনই সমান যায় না। তাই ভবিষ্যতে যদি খারাপ সময় আসে; তখনও যেন সঙ্গী আপনার পাশে থাকে তা নিশ্চিত করুন। নিজেদের ক্যারিয়ার, চাকরি এসব সামলে তবেই বিয়ে করে সংসার পাতুন।

>> কথায় আছে, সংসার সুখের হয় রমনীর গুণে। শুধু রমণীর গুণেই নয় বরং সংসারের কর্তারও গুণ থাকতে হবে। সঞ্চয় এবং খরচ আয় বুঝে করতে হবে। এজন্য দু’জনেরই বুদ্ধি, বিবেচনা এক হতে পাবে। বিভিন্ন শখ পূরণ করতে সব অর্থ খরচ না করে জমানোর চেষ্টা করুন। নিজের শরীরের খেয়াল রাখতেই কিছুটা জমানো জরুরি।