এই ৭টি সহজ ব্যায়াম চেহারার বয়সের ছাপ প্লাস্টিক সার্জারির চেয়েও ভালো ভাবে দূর করবে

বয়সের ছাপ দূর করতে সৌন্দর্য সচেতন মানুষেরা প্লাস্টিক সার্জারি করেন। কিন্তু সবার তো আর সার্জারি খরচ মেটানোর সামর্থ্য থাকে না। আর সার্জারি করলেই যে তা চিরস্থায়ী হবে তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই। মুখমণ্ডলের এমন কিছু ব্যায়াম রয়েছে যা প্লাস্টিক সার্জারির চেয়েও অনেক উপকারী।

আমরা আনন্দের সাথে আপনাকে এমনই ৭টি ব্যায়ামের কথা জানাতে যাচ্ছি। আর বোনাস হিসাবে লেখার একদম শেষে চেহারার যোগ ব্যায়ামের উপকারিতা সম্পর্কেও বলা হয়েছে।

১. মসৃণ কপালের জন্য

কপালে হাত রাখুন। কনিষ্ঠ আঙুল ভ্রুর উপর এবং বাকি আঙুলগুলো কপালের ভাজগুলোর উপর রেখে চাপ দিন। এবার চাপের বিপরীতে ভ্রু উপরের দিকে তুলতে চেষ্টা করুন। কিছুক্ষণ থেমে এভাবে ২০ বার করুন। প্রতিবার আগের চেয়ে বেশি তোলার চেষ্টা করবেন।

২. নাকের দুপাশে গালের ভাজ দূর করতে

হাসুন। নাকের পাশের ভাজ আর ঠোঁটের কোণার সংযোগ স্থলে দুটি আঙুল রাখুন। এবার খুব সযত্নে আপনার আঙুল দিয়ে ত্বক উপরের দিকে টানুন। এবার চেহারার পেশির শক্তি ব্যবহার করে আঙুলের চাপ প্রতিহত করুন যেন মনে হয় আঙুলের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে উঠেছে। এভাবে ১০ বার করুন।

৩. আকর্ষণীয় ঠোঁটের জন্য

মনে করুন আপনাকে শিস দিতে হবে। শক্তভাবে ঠোঁট গোল করে ১০ সেকেন্ড ধরে থাকুন। তারপর স্বাভাবিক হয়ে মুখ দিয়ে বাতাস ছাড়ুন। এভাবে ৫বার করুন।

৪. ঠোঁটের কোনা ঝুলে পড়া প্রতিরোধ করতে

মুখের দুই পাশে আঙুল দিয়ে দুই গালের ত্বক টেনে ধরুন। সহ্য ক্ষমতার মধ্যে যতটুকু টান দেওয়া যায় দিন। এই ব্যায়াম করার আগে হাত ধুয়ে নিতে ভুলবেন না।

৫. চোখের ভাজ দূর করতে

নাকের গোঁড়ায় দুই আঙুল রাখুন। খুব ধীরে ধীরে ঘুরিয়ে ঘুরিয় চোখের নিচ দিয়ে কানের গোঁড়া পর্যন্ত আঙুল দিয়ে ১০ বার ম্যাসাজ করুন।

৬. নাকের পাশের ভাজ দূর করতে

ঠোঁট গোল করে নাকের দুপাশের ভাজের উপর আঙুল দিয়ে চাপ বজায় রাখুন। আঙুল না সরিয়ে আপনার ঠেঁটে চাপ বাড়িয়ে দিন। এভাবে ১০ বার করুন।

৭. ফ্রেশ দেখাতে

নাক দিয়ে গভীর শ্বাস নিন। এরপর এই বাতাস মুখ বন্ধ করে থুতনির দিকে ঠেলে দিন এবং ৩-৫ সেকেন্ড ধরে রাখুন।

বোনাস: বয়সের ছাপ কমাতে ভিটামিন ই ব্যবহার করুন

১ টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল নিন এবং এটি ছিদ্র করে এর মধ্য থেকে সাবধানে তরলটি বের করে নিয়ে একটি বাটিতে ঢালুন। এবারে এর সাথে কয়েক ফোটা অর্গানিক নারকেল তেল মিশিয়ে নিন ভালোভাবে। এবার আপনার ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার করে, শুকনো করে মুছে নিন। তারপর ভিটামিন ই এবং নারকেল তেলের মিশ্রণটি আঙুল দিয়ে আপনার মুখে প্রায় দু’ মিনিট যাবত ম্যাসাজ করুন। এভাবে প্রতিদিন রাতে ব্যবহারে দ্রুত আপনার বলিরেখা কমে আসবে।

ভিটামিন ই স্কিন-কে হাইড্রেট করে এবং বলিরেখার জন্য দায়ী ত্বকের অতিরিক্ত শুষ্কতা দূর করে। এতে রয়েছে টেকোফেরোল, যা একটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং এটি নিস্তেজ স্কিন-কে সজীব করে তোলে এবং স্কিন ড্যামেজ হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে।